ফাইল ফটো
আন্তর্জাতিক

ইসরায়েলে গুলিতে ৬ ফিলিস্তিনি নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসরায়েলে পৃথক ঘটনায় নারীসহ ৬ ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। আরব সংখ্যালঘুদের ওপর দেশটিতে ভয়ংকর প্রাণঘাতী হামলার সর্বশেষ ঘটনা এটি।

আরও পড়ুন: দক্ষিণ আফ্রিকায় ভারী বৃষ্টি ও বন্যা, নিহত ১১

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) উত্তর ইসরায়েলের বাসমাত তাবুন শহরে একই পরিবারের ৫ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ২ জন নারী ও ৩ জন পুরুষ।

নিহতরা সম্পর্কে বাবা-মা ও তাদের ৩ সন্তান ছিলেন বলে নিশ্চিত জানিয়েছে পর্যবেক্ষক সংগঠন আব্রাহাম ইনিশিয়েটিভস।

এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি পুলিশ বলছে, সন্দেহভাজন হত্যাকারীদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে তারা। একই দিনে সংঘটিত এ ২ টি হত্যাকাণ্ড কোনোভাবে সম্পর্কিত কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: ক্রিমিয়ায় ইউক্রেনের ভয়াবহ হামলা

এর আগে দেশটির হাইফা শহরে আরেক ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করে বন্দুকধারীরা। ঐ ব্যক্তি কর্মস্থলে যাওয়ার পথে এ হামলার শিকার হন। হাইফার যে এলাকায় প্রথম হত্যাকাণ্ডটি হয়েছিল, সেখানকার সব স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আব্রহাম ইনিশিয়েটিভসের হিসেব অনুযায়ী, এ ২ টি ঘটনা মিলিয়ে চলতি বছরে ইসরায়েলে কমপক্ষে ১৮৮ ফিলিস্তিনি হত্যার শিকার হলেন।

উল্লেখ্য, ইসরায়েলের ৯৭ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে ২০ শতাংশই ফিলিস্তিনি নাগরিক। সেখানে তারা দীর্ঘদিন ধরে দারিদ্র্য, বৈষম্য ও সরকারের অবহেলার শিকার।

আরও পড়ুন: ভারতে ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত বৃদ্ধার মৃত্যু

ফিলিস্তিনি অধ্যুষিত এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, সেখানে পুলিশি নিরাপত্তার অভাব রয়েছে। ফলে অপরাধী ও মাদক কারবারিরা সেখানে অবাধে ঘুরে বেড়াতে পারে।

গত বছর দায়িত্ব নেওয়ার সময় ইসরায়েলের কট্টর ডানপন্থি জাতীয় নিরাপত্তা মন্ত্রী ইতামার বেন জিভির ঘোষণা দিয়েছিলেন, ফিলিস্তিনি অধ্যুষিত এলাকাগুলোতে অপরাধ কমাতে নিরাপত্তা জোরদার করা হবে।

আরও পড়ুন: মোংলায় জাহাজ কর্মচারীর লাশ উদ্ধার

তবে এ পর্যন্ত সে বিষয়ে তেমন কোনো অগ্রগতি চোখে পড়ছে না। বরং এসব এলাকায় সহিংসতা ও প্রাণহানির সংখ্যা আরও বেড়েছে। আব্রাহাম ইনিশিয়েটিভস জানিয়েছে, এসব ঘটনায় দায়ের হওয়ার মামলাগুলোর মধ্যে ১০ শতাংশেরও কম সমাধান হয়েছে।

এটি জরুরি অবস্থা উল্লেখ করে এক বিবৃতিতে সংগঠনটি বলছে, প্রধানমন্ত্রীকে অবশ্যই জননিরাপত্তা মন্ত্রীকে বরখাস্ত করতে হবে। সেই সাথে অবিলম্বে আরব সমাজে অপরাধ মোকাবিলার পরিকল্পনা করতে হবে।

আরও পড়ুন: কামরাঙ্গীরচরে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নিহত ১

সেখানকার মানুষ বাইরে যেতে ভয় পায় জানিয়ে সংগঠনটির পরিচালক থাবেত আবু রাস বলেন, পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশের ইচ্ছা বা ক্ষমতা কোনোটাই নেই। পরিস্থিতি খুবই বিপজ্জনক।

সান নিউজ/এনজে

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

খাগড়াছড়িতে গৃহবধুর আত্মহত্যা

আবু রাসেল সুমন, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি:

আয়মানের সাথে আমার সম্পর্ক নেই

বিনোদন ডেস্ক: বর্তমানের সময় ছোট প...

স্রোতের তোড়ে ভেসে গিয়ে নিহত ১

নিনা আফরিন, পটুয়াখালী: ফুফু ও বোনকে আশ্রয়কেন্দ্রে আনতে গিয়ে...

পশ্চিমবঙ্গের ৬ জেলায় ‘রেড অ্যালার্ট’ জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বঙ্গোপসাগরে সৃ...

যুক্তরাষ্ট্র দেশের জন্য উন্নয়ন সহযোগী

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুক্তরাষ্ট্রের...

গাছচাপা পড়ে প্রাণ গেল যুবকের

নিজস্ব প্রতিবেদক: খুলনায় ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে তীব্র বাতা...

বিপাশার নতুন অধ্যায়

বিনোদন ডেস্ক: বিপাশা বসু অভিনেত্র...

শিশুর পুরুষাঙ্গে ইট বেঁধে ভিডিও ধারণ, গ্রেফতার ৩ 

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে...

মস্তিষ্কের ক্ষতি করে যেসব খাবার

লাইফস্টাইল ডেস্ক: খাবারের প্রভাব...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা