সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক

শর্তসাপেক্ষে শস্যচুক্তি নবায়ন 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন দাবি পূরণ না হলে রাশিয়া শস্যচুক্তি নবায়ন করবে না। তিনি আরও বলেছেন, পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার দাবিপূরণ না করা পর্যন্ত মস্কো এই চুক্তি কার্যকর করবে না।

আরও পড়ুন: দ্বিতীয় দিনে ২২ লাখ টাকা টোল আদায়

মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের সাথে বৈঠকের পর ইউক্রেনীয় শস্য নিরাপদে রপ্তানির বিষয়ে পুতিন তার এই অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান সোমবার কৃষ্ণসাগর তীরবর্তী রাশিয়ার সোচি শহরে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে বৈঠকে বসেন।

আরও পড়ুন: রাষ্ট্রপতিকে লাল গালিচা অভ্যর্থনা

আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য ও এশিয়ায় বৈশ্বিক খাদ্য সরবরাহের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে পরিচিত শস্য চুক্তিটিকে পুনরুজ্জীবিত করার আশায় এ বৈঠকের আয়োজন করা হলেও নিজেদের দাবি পূরণের বিষয়ে পুতিন তার দৃঢ় অবস্থানের কথা জানিয়েছেন।

মূলত ভ্লাদিমির পুতিন এদিন তার কৃষি রপ্তানির বিষয়ে মস্কোর দাবি পশ্চিমা দেশগুলো পূরণ করার পরেই কৃষ্ণসাগর দিয়ে ইউক্রেনীয় শস্য নিরাপদে পাঠানোর বিষয়ে জাতিসংঘের মধ্যস্ততায় ইতোপূর্বে স্বাক্ষরিত চুক্তি পুনঃস্থাপনের বিষয়ে তার অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেন।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরু করে। এরপর ইউক্রেনে সেনা পাঠিয়ে কৃষ্ণসাগরের জাহাজ চলাচল পথ ও বন্দরগুলোর নিয়ন্ত্রণ নেয় মস্কো। এতে করে ইউক্রেনের উৎপাদিত শস্য বন্দরে আটকে যায়। কৃষ্ণসাগরে রাশিয়ার অবরোধের কারণেই মূলত ইউক্রেন বন্দরে রপ্তানির জন্য প্রস্তুত থাকা কোটি কোটি টন খাদ্যশস্য আটকা পড়ে ছিল।

আরও পড়ুন: বিদ্রোহসহ সংশ্লিষ্ট অপরা‌ধ প্রমা‌ণে মৃত্যুদণ্ড

এতে বিশ্বব্যাপী খাদ্যের দাম দ্রুত হারে বাড়তে থাকে এবং দরিদ্র দেশগুলোয় খাদ্য সঙ্কট দেখা দেয়। গত বছরের ২২ জুলাই রাশিয়া–ইউক্রেনের মধ্যে পরিস্থিতিতে ইউক্রেনের বন্দরগুলো দিয়ে খাদ্যশস্য রপ্তানি স্বাভাবিক করতে এমন একটি চুক্তি স্বাক্ষর হয়। গত বছরের আগস্ট মাসের শুরু থেকে কার্যকর হয়।

চুক্তির মধ্যস্থতায় জাতিসংঘ ও তুরস্ক ছিল। ঐ চুক্তির ফলে রাশিয়া কৃষ্ণসাগরে তাদের অবরোধ শিথিল করে যেনো ইউক্রেন থেকে সমুদ্রপথের নিরাপদ করিডর দিয়ে খাদ্যবাহী জাহাজ চলাচল করতে পারে। পরে আগস্ট থেকেই ইউক্রেনের ৩ টি বন্দর থেকে বাকি বিশ্বে নিরাপদে খাদ্যশস্য রপ্তানির পথ খুলে যায়।

মূলত যুদ্ধ সত্ত্বেও ইউক্রেনকে কৃষ্ণসাগর বন্দরগুলো থেকে শস্য রপ্তানির অনুমতি দিয়েছিল রাশিয়া বৈশ্বিক খাদ্য সংকট দূর করতে। মস্কো গত জুলাই মাসে এ চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর জন্য রাশিয়ার শর্ত উপেক্ষা করা হয়েছে অভিযোগ তুলে সেই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায়।

আরও পড়ুন: যুগ্ম সচিব হলেন ২২১ কর্মকর্তা

রাশিয়ার অভিযোগ, দেশটির খাদ্য ও সার রপ্তানির প্রতিবন্ধকতা দূর করার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও তা রক্ষা করা হয়নি। তাদের দাবি, জাহাজ চলাচল ও বীমার উপর আরোপিত বিধিনিষেধ কৃষি বাণিজ্যকে বাধাগ্রস্ত করেছে। গত বছর থেকে বিশ্বজুড়ে রেকর্ড পরিমাণ গম প্রেরণ করেছে মস্কো।

পুতিন মূলত সোমবারের বৈঠকে সে অভিযোগগুলোই পুনর্ব্যক্ত করেছেন এবং জানিয়েছেন, সামরিক উদ্দেশ্যে কৃষ্ণসাগর করিডোরকে ব্যবহার করা উচিত নয়। তিনি সাংবাদিকদের জানান, যদি এই প্রতিশ্রুতিগুলো রক্ষা করা হয় তবে রাশিয়া ‘কিছু দিনের মধ্যে’ চুক্তিতে ফিরে আসতে পারে।

অন্যদিকে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান এই বিষয়ে শিগগিরই একটি অগ্রগতি আসতে পারে বলেও আশা প্রকাশ করেন। তিনি জানান, তুরস্ক ও জাতিসংঘ এ সমস্যা সমাধানের জন্য একটি নতুন প্যাকেজ প্রস্তাব নিয়ে একসাথে কাজ করছে।

আরও পড়ুন: জড়িতদের চিহ্নিত করার নির্দেশ

ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা গ্রহণকারী তুর্কি প্রেসিডেন্ট জানান, ‘আমরা বিশ্বাস করি, ত্রুটিগুলো সংশোধন করে শস্য রপ্তানির এই উদ্যোগটি অব্যাহত রাখা উচিত।’

বস্তুত, চলতি বছরের মে মাসে ৩য় মেয়াদে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট হিসেবে এরদোয়ানের পুনর্নির্বাচনের পর এটিই ছিল এই ২ নেতার মধ্যে প্রথম বৈঠক।

অন্যদিকে শস্যচুক্তি নিয়ে মস্কোর অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তারা বলছে, মস্কোর বিরুদ্ধে তাদের আরোপিত নিষেধাজ্ঞাগুলো রাশিয়ান শস্য ও সারকে লক্ষ্যবস্তু করেনি।

আরও পড়ুন: ঢাকায় পৌঁছেছেন মা‌র্কিন উপসহকারী মন্ত্রী

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, কৃষ্ণসাগরীয় শস্য চুক্তিটি পুনরুজ্জীবিত করতে ব্যর্থ হলে বেশ কয়েকটি আফ্রিকান দেশে ‘কঠোর প্রভাব’ পড়বে, যারা ইউক্রেনীয় ও রাশিয়ান শস্যের উপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল।

তবে এটি মোকাবিলায় পুতিন সোচিতে সাংবাদিকদের জানান, আফ্রিকার ৬ টি দেশে বিনামূল্যে শস্য সরবরাহ করবে মস্কো। তিনি জানান, ‘আমরা ৬টি আফ্রিকান দেশের সাথে চুক্তি সম্পন্ন করার কাছাকাছি রয়েছি, যেখানে আমরা বিনামূল্যে খাদ্যসামগ্রী সরবরাহ করতে চাই, এমনকি বিনামূল্যে ডেলিভারি ও এ সংক্রান্ত সরঞ্জামও পাঠাতে চাই।

এছাড়াও তিনি জানান, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে এই সরবরাহ কার্যক্রম শুরু হবে। রাশিয়ান এ প্রেসিডেন্টের অভিযোগ, কৃষ্ণসাগর চুক্তির মাধ্যমে রপ্তানি করা শস্যের বড় একটি অংশ দরিদ্র দেশগুলোর পরিবর্তে পশ্চিমা দেশগুলোতে চলে গেছে।

সান নিউজ/এএ

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ উদ্বোধন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার মিরপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে ব...

মিষ্টি জান্নাতকে আইনি নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: মানহানির মতো মন...

আনহার আহমেদ চৌধুরী মৃত্যুবরণ করেছেন

নিজস্ব প্রতিনিধি: ইউনিভার্সিটি অফ...

আনারের হত্যাকারীরা চিহ্নিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : এমপি আনোয়ারুল আজীম আনারকে যারা হত্যা করেছ...

বড়াইগ্রামে দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা

নাটোর প্রতিনিধি: বড়াইগ্রামের বনপাড়া বাজারের বনফুল সুইটসের মা...

পরকীয়ার জেরে যুবককে হত্যা

জেলা প্রতিনিধি : কুষ্টিয়া শহরে পরকীয়ার জেরে ইকবাল হোসেন (৩০)...

বাবার এক টুকরো মাংস চাই

জেলা প্রতিনিধি : ভারতে নিহত ঝিনাইদহ-৪ (কালীগঞ্জ) আসনের সংসদ...

নেতানিয়াহুকে গ্রেফতারে পূর্ণ সমর্থন আছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : আন্তর্জাতিক আদালতে বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর...

রাফায় ইসরায়েলের হামলা বন্ধের নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার রাফায় ইসরাইলের...

ঈদের পর শনিবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন ঈদুল আজহার ছুটির পর মাধ্যমিক ও উচ্চ...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা