শিক্ষা

পারিবারিক দ্বন্দের জেরে রাবি শিক্ষার্থীকে জখম

খোরশেদ আলম, রাবি প্রতিনিধি : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) এক শিক্ষার্থীকে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে জখম করেছে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের আরেক শিক্ষার্থী।

আরও পড়ুন: চীনে ১১৩ যাত্রী নিয়ে প্লেনে আগুন

বৃহস্পতিবার (১২ মে) সকাল নয়টায় দিনাজপুর জেলায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় তাকে দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়েছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর নাম লোকমান হোসেন শাওন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। অন্যদিকে হামলাকারীর নাম আনাস। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী।

এক সূত্রে জানা যায়, হামলাকারী আনাস ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী শাওনের বাসায় এসে শাওনকে দেশীয় অস্ত্র( দা-শাবল-চুরি ) দিয়ে জখম করে। এ সময় শাওনের ছোটভাই ও তাদের মাকেও মারধর করে পালিয়ে যায় ।

এই ঘটনায় শাওনের বড়ভাই স্বাধীন বলেন , 'আমি ঢাবির আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার পর থেকেই পাশের বাড়ির ওই পরিবারের সাথে কোনো কারণ ছাড়াই ঝামেলা হতে শুরু করে। তারা আমাদের যেকোনো অর্জন দেখতে পারতো না। গতকাল আমি ঢাকা থেকে বাড়িতে এসেছি। আজ সকাল নয়টার দিকে কোনো কারণ ছাড়াই ঝামেলা শুরু করে আনাস নামের ঐ ছেলেটা। এক পর্যায়ে আনাস শাওন ও আমার ছোট ভাইয়ের ওপর হামলা চালায়। আমার মা কেও মারধর করেছে।'

আরও পড়ুন: কয়েকদিন হাসপাতালেই থাকছেন সম্রাট

তিনি আরও বলেন, 'এলাকায় আনাসের বাবাকে সবাই সন্ত্রাসী হিসেবে চিনে। এছাড়া তার নামে একাধিক হত্যা মামলাও রয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।'

ভুক্তভোগী রাবি শিক্ষার্থী শাওন বলেন, 'বাড়িতে আমি, মা ও ছোট ভাই ছিলাম। বাবা বাহিরে ছিলেন। আনাস ও তার পরিবারের সদস্য পাঁচজন মিলে দা, লাঠি, শাবল দিয়ে হামলা করে। এতে আমার মাথায় বিশটা সেলাই দেওয়া হয়। আমার মা ও ছোট ভাইকেও প্রচুর মারধর করে তারা।'

তিনি আরও বলেন, 'তারা একটা ডাকাতের পরিবার। গতবছর ডাকাতির কারণে ধরা পড়ে। আমি আমাদের পরিবারের উপর এমন পূর্বপরিকল্পিত হামলার যথাযথ বিচার দাবি করি।'

এ বিষয়ে দিনাজপুর খানসামা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি ) কামাল হোসেন বলেন, 'ভুক্তভোগীর বড় ভাইয়ের সাথে কথা হয়েছে। থানায় এসে তার আত্মীয়ের কাউকে লিখিত অভিযোগ দায়ের (এজাহার) করতে বলেছি। এখন যারা আহত হয়েছে তাদের চিকিৎসা চলছে। এটা তাদের দীর্ঘদিনের পারিবারিক ঝামেলা। থানায় এসে লিখিত অভিযোগ( এজাহার) করার পর আমরা ব্যবস্থা নিবো। '

সাননিউজ/এমআরএস

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

মানবাধিকার নিয়ে ইইউ'র উদ্বেগ

সান নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশের মানবাধ...

ঠাকুরগাঁওয়ে সাপের কামড়ে একজনের মৃত্যু 

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় গর...

পানিবন্দি সুনামগঞ্জের লাখো মানুষ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: উজানের ঢল ও টানা বৃষ্টিতে হাওরের পানি উ...

পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে মানুষ পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে

সান নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও...

নিজেকে সব সময়ই নায়িকা ভাবি

সান নিউজ ডেস্ক: ঢাকাই সিনেমার এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নূত...

বিএনপিকে নির্বাচনে আসতে হবে

সান নিউজ ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সাধ...

কারাগারে হাজী সেলিম

সান নিউজ ডেস্ক: দণ্ডপ্রাপ্ত আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য হাজী সেল...

নিখোঁজ দুই শ্রমিকের সন্ধান মেলেনি

মো. নাজির হোসেন, মুন্সীগঞ্জ: মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় পদ্ম...

রুশ মুদ্রার নাটকীয় উত্থান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মার্কিন যুক্ত...

বুঝে-শুনে উন্নয়ন পরিকল্পনা নিতে হবে

সান নিউজ ডেস্ক: প্রকল্প নেওয়ার আগে ভালোভাবে জেনে বুঝে নেওয়ার...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা