খেলা

বাংলাদেশ-ভারতের ৫ ক্রিকেটার পেলেন শাস্তি

দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অর্জন যুব বিশ্বকাপ জয়। কিন্তু এর সাথে খানিকটা কলঙ্কের দাগও যেন লাগলো স্বর্ণের অক্ষরে লেখা দিনটিতে। ভারতের দুই ক্রিকেটারের সঙ্গে টোইগারদের তিনজনকেও পেতে হল শাস্তি। রোববার দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনাল শেষে অশোভন আচরণের কারণে দুই দেশের পাঁচ ক্রিকেটারকে শাস্তি দিয়েছে আইসিসি।

ওই দিনের ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদের শাস্তি দেয়া হয়। ফাইনাল ম্যাচ শেষে নিজেদের মধ্যে বিতর্ক এবং ধাক্কাধাক্কি করে এই পাঁচ খেলোয়াড় ক্রিকেটের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছেন বলে জানিয়েছে আইসিসি।

শাস্তি পাওয়া ক্রিকেটারদের মধ্যে তিনজন বাংলাদেশি ও দুইজন ভারতীয়। ক্রিকেটাররা অনূর্ধ্ব-১৯ বা ‘এ’ দলের হয়ে সামনের ওয়ানডে অথবা টি-টোয়েন্টি ম্যাচে এই নিষেধাজ্ঞার শাস্তি ভোগ করবেন।

শাস্তি পাওয়া বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের তিন ক্রিকেটার হলেন- তৌহিদ হৃদয় (১০ ম্যাচ নিষিদ্ধ), শামীম হোসেন (৮ ম্যাচ নিষিদ্ধ) এবং রকিবুল হাসান (৪ ম্যাচ নিষিদ্ধ)। ভারতের দুই ক্রিকেটারের মধ্যে আকাশ সিং নিষিদ্ধ হয়েছেন ৬ ম্যাচ আর লেগস্পিনার রবি বিষ্ণুইকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে ৫ ম্যাচ।

গত রবিবার বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। ফাইনালে বাংলাদেশের রকিবুল হাসান জয়সূচক শেষ রানটি নেওয়ার পর উল্লাসে মাতেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়েরা। এ সময় মাঠে থাকা ভারতীয় খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি, এমনকি সামান্য ধাক্কাধাক্কিও হয়।

পতাকা নিয়ে টানাহেঁচড়ার ঘটনাও ঘটেছে। এ বিষয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক আকবর আলী। কিন্তু অধিনায়কের ক্ষমা প্রার্থনাতেও খুব একটা লাভ হয়নি। পুরো ঘটনা নিয়ে গতকাল তদন্ত প্রতিবেদন দেন আইসিসির ম্যাচ রেফারি গ্রায়েম ল্যাব্রয়।

গ্রায়েম ল্যাব্রয় জানান, বাংলাদেশের তিন ক্রিকেটার ও ভারতের দুই খেলোয়াড় আইসিসির বিধিবিধানের ২.২১ ধারা ভঙ্গ করেছেন।

বাংলাদেশের তৌহিদ পেয়েছেন ১০টি সাসপেনশন পয়েন্ট, যা ৬টি ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। শামিমের ক্ষেত্রে সাসপেনশন পয়েন্ট ৮টি হলেও ডিমেরিট পয়েন্ট কিন্তু ৬টিই থাকছে। স্পিনার রকিবুল চারটি সাসপেনশন পয়েন্ট পেয়েছেন, যেটা ৫ ডিমেরিট পয়েন্টের সমান। এ পয়েন্টগুলো তিনজনেরই ক্যারিয়ারে আগামী দুই বছর থেকে যাবে।

ভারতের আকাশ ৮ সাসপেনশন ও ৬ ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন। বিষ্ণয় প্রথম অপরাধের জন্য ৫ সাসপেনশন ও ৫ ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন। আর ২৩তম ওভারে অভিষেক দাস আউট হওয়ার পর বাজে ভাষা ব্যবহার করায় পেয়েছেন আরও দুটি ডিমেরিট পয়েন্ট। পাঁচ ক্রিকেটারই এ শাস্তি মেনে নিয়েছেন।

এ শাস্তির ফলে আগামী দুই বছর জাতীয় দল বা অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে শাস্তি ভোগ করতে হবে এই পাঁচ ক্রিকেটারকে। ১ সাসপেনশন পয়েন্ট মানেই একটি ওয়ানডে বা টি-টোয়েন্টি, অনূর্ধ্ব-১৯ পর্যায় বা এ দলের একটি ম্যাচ খেলতে না পারার শাস্তি। সে অনুযায়ী বেশ বড় শাস্তিই জুটেছে এই পাঁচ ক্রিকেটারের।

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

বিদ্যুৎ নেই রাজধানীসহ দেশের অধিকাংশ এলাকায়

সান নিউজ ডেস্ক : জাতীয় গ্রিডের একটি সঞ্চালন লাইনে বিভ্রাট দে...

চিকিৎসায় নোবেল পেলেন সুভান্তে প্যাবো

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: চলতি বছরের চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পুরস্কার...

তাইওয়ানে হামলা করবে না চীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মার্কিন প্রতির...

অন্যরকম যুদ্ধে বিধ্বস্ত তাইওয়ান

সান নিউজ ডেস্ক: গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্ব জুড়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে...

মাইন বিস্ফোরণে রোহিঙ্গা কিশোর নিহত

সান নিউজ ডেস্ক: বান্দরবানের নাইক্...

আফ্রিকায় বিস্ফোরণে ৪ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী আহত

সান নিউজ ডেস্ক: মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্রে জাতিসংঘের তত্ত্বাব...

জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ বিদ্যোৎসাহী সাংবাদিক ফারুক

আমিরুল হক,স্টাফ রিপোর্টার : জাতীয়...

সন্ধ্যার পর বিদ্যুৎ স্বাভাবিক হবে

সান নিউজ ডেস্ক: জাতীয় গ্রিডের সঞ্চালন লাইনে বিপর্যয়ের কারণে...

ইমরান খান পৃথিবীর সবচেয়ে বড় মিথ্যাবাদী

সান নিউজ ডেস্ক: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী রাজ...

সৈয়দপুরে কিশোরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

আমিরুল হক, স্টাফ রিপোর্টার : নীলফ...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা