ছবি: সংগৃহীত
বাণিজ্য

বৃষ্টিতে সবজির দাম চড়া, অসহায় ক্রেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশব্যাপী বৃষ্টিপাতের প্রভাব পড়েছে সবজির বাজারে। বাজারে তুলনামূলক সবজি কম থাকায় বিক্রেতাদের অনেকটাই বেপরোয়া আচরণ দেখা গেছে। এতে সাধারণ মানুষকে বাধ্য হয়ে প্রয়োজনীয় বাজার করে ঘরে ফিরতে হচ্ছে।

আরও পড়ুন: তাপমাত্রা কমার আভাস

শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। বিক্রেতাদের দাবি, বৃষ্টির কারণে বাজারে সবজি কম। তাই বেশি দামেই আমাদের কিনে আনতে হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বাজারে শসা বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৫০-৬০ টাকায়, যেখানে ২ দিন আগেও ছিল ৪০ টাকা কেজি। বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকায়।

শীতের মৌসুমে সবচেয়ে কম দামে থাকার কথা যে সবজির, সেই ফুলকপি-বাঁধাকপিও বিক্রি হচ্ছে প্রতি পিস ৪০-৫০ টাকায়।

এছাড়া বাজারে টমেটো ১০০ টাকা, লাউ ৬০-৮০ টাকা, সিম ৫০ টাকা, মুলা ২০ টাকা, কাঁচা মরিচ ১২০ কেজি বিক্রি হচ্ছে। ২ দিন আগেও এই কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে ৭০-৮০ টাকায়।

আরও পড়ুন: ভানুয়াতুতে শক্তিশালী ভূমিকম্প

আজ বাজারে অন্যান্য দিনের তুলনায় শাকের উপস্থিতিও কম দেখা গেছে। ফলে দামও তুলনামূলক বেশি। এক আঁটি লালশাক বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকায়, যা অন্যান্য সময়ে ১০-১৫ টাকা করে পাওয়া যায়। এছাড়া লাউশাক ৫০ টাকায়, পালংশাক ২০ টাকা ও মুলাশাক ১৫ টাকা আঁটি করে বিক্রি হচ্ছে।

বাজার করতে আসা বেসরকারি চাকরিজীবী মাহমুদুল হাসান জানান, শুক্রবার এলেই শাক-সবজির দাম বেড়ে যায়। সবজির দাম শুনলে মাথা গরম হয়ে যায়।

এখন প্রায় শীতের সব সবজিই বাজারে চলে এসেছে। তারপরও দাম কমছে না। যা দাম চাচ্ছে তাই দিতে হবে। না হয় সামনে দাঁড়ানোরও সুযোগ নেই। কী আর করা, বাধ্য হয়েই কিনতে হচ্ছে।

আরও পড়ুন: কোটালীপাড়ায় প্রধানমন্ত্রী

বাজারগুলোতে কোনো মনিটরিং কোনোদিন দেখিনি। বাজার কমিটিও থাকে সাধারণ মানুষের পকেট কাটার ধান্দায়। সরকারও সিন্ডিকেটের কাছে যেন অসহায়।

এক ভ্যানচালক রফিকুল ইসলাম বলেন, খারাপের দিনে এমনিতেই আয় রোজগার কম। তারপর আবার জিনিসপত্রের দাম বেশি। আমাদের মতো মানুষের হয়েছে যন্ত্রণা। ভারী কাজ করতে হয় বলে না খেয়েও থাকা যায় না। এ দামের বাজারে কিনে খাওয়াও কষ্ট।

শাক বিক্রেতা রাব্বি ইসলাম বলেন, সকালে কারওয়ান বাজারে গিয়ে খুব বেশি শাক পাইনি। কম করেই এনেছি। এর মধ্যেই আমার লাভটা বের করে নিতে হবে। আমাদেরও তো পরিবার সংসার আছে। ২ টা টাকা যদি লাভ না করতে পারি, তাহলে ব্যবসা করে কী লাভ!

আরও পড়ুন: ঢামেকে কারাবন্দির মৃত্যু

২ দিনের বৃষ্টিতে অনেকেরই শাক নষ্ট হয়েছে। আজকের দিন এভাবে থাকলে দাম আরও বাড়তে পারে। তবে দিন ভালো হয়ে গেলে ২ দিনেই সব ঠিক হয়ে যাবে।

আরেক সবজি বিক্রেতা মো. কবির হোসেন বলেন, বৃষ্টিতে আমাদেরও সবজি নষ্ট হয়। তাই সব ব্যবসায়ীরাই কম কম কিনে। পাইকারি বাজারেও যে সবজি খুব বেশি, তা না। বৃষ্টির কারণে ঢাকায় সবজি কম ঢুকে। তাই বাধ্য হয়েই দামটা একটু বাড়িয়ে রাখতে হয়।

বিক্রেতা রাকিব মিয়া জানান, শীতের সবজি বাজারে আসতে শুরু করলেও চাহিদা তুলনামূলক বেশি। দাম বেশি হলেও মানুষ এতো পরিমাণ নিচ্ছে, যা দেখে আমরাও অবাক।

তার মানে চাহিদা অনুযায়ী সবজির পরিমাণ কম। তাই বাধ্য হয়েই বেশি দামে বিক্রি করতে হয়।

সান নিউজ/এনজে

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

ছুটির দিনে মুখর সোহরাওয়ার্দী

নুসরাত জাহান ঐশী: আজ সপ্তাহিক ছুটির দিনে রাজধানীর প্রাণকেন্দ...

ভারত ছাড়লেন সালমান খান

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডের ভাইজান খ্যাত সুপারস্টার সালমান খান। স...

বিটরুটের উপকারিতা

লাইফস্টাইল ডেস্ক : বিটরুট হচ্ছে এ...

ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, নিহত ৩

জেলা প্রতিনিধি : রাজশাহীতে ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেলের তিন আর...

শিব নারায়ণ দাস আর বেঁচে নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের জাতী...

বাঘের আক্রমণে নিহত ১

জেলা প্রতিনিধি : সুন্দরবনে মধু আহরণের সময় বাঘের আক্রমণে মনির...

বাসচাপায় প্রাণ গেল বাবা-ছেলের

জেলা প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ে কাঁচপুরে বাসচাপায় বা...

ময়মনসিংহে ইসলামী ব্যাংকের সম্মেলন অনুষ্ঠিত 

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইসলামী ব্যাংক ব...

শ্রমিকদের নিরাপত্তায় শিল্প পুলিশ বদ্ধপরিকর

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ঈদ...

কাতারের আমিরের নামে হচ্ছে সড়ক-পার্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানী ঢাকায় কাতারের আমির শেখ তামিম বিন...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা