জাতীয়

ভিসানীতি বিএনপির জন্য বড় চাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপি আর নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা দিতে পারবে মন্তব্য করে তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে স্বচ্ছ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন করতে চাচ্ছেন, এটি তার জন্য সহায়ক হবে। বিএনপির জন্য বড় চাপ তৈরি করেছে এই ভিসানীতি। কারণ এখন আর নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা দিতে পারবে না তারা।

আরও পড়ুন : বিশ্বে শান্তি নিশ্চিত করা কঠিন

সোমবার (২৯ মে) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ভিসানীতিতে বলা হয়েছে, এটি সরকারি ও বিরোধী—দুই দলের জন্যই। কেউ যদি নির্বাচনে বাধা দেয়, তাদের ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য হবে। নির্বাচনে বাধা দেওয়া তো গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে বাধা দেওয়া। আর নির্বাচন প্রতিহত করা তো সংঘাত তৈরি করা। কাজেই এগুলো তো বিএনপি করতে পারবে না। মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্রিফিংয়ে বিএনপির তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি নিয়েও প্রশ্ন করা হয়েছিল, তারা বলেছে, এটি নিয়ে তাদের কোনো মাথা ব্যথা নেই। তারা বাংলাদেশে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন চাচ্ছে।

আরও পড়ুন : রুশ হামলায় পুড়ছে কিয়েভ

তিনি বলেন, কাজেই যুক্তরাষ্ট্র-তো বটেই, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রতি বিশ্বজুড়ে কারো কোনো সমর্থন নেই। অন্তত আন্তর্জাতিকভাবে এ নিয়ে আর কিছু বলার সুযোগ নেই বিএনপির। কাজেই এটি তাদের ওপর বড় চাপ তৈরি করেছে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘গাজীপুর সিটি করপোরেশনে স্বচ্ছ ও অবাধ নির্বাচন দিয়ে শুরু করেছি।’ তাহলে কী আগের নির্বাচনগুলো সুষ্ঠু হয়নি-এই প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আগেরগুলো সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ হয়েছে। গাজীপুরেরটি যেহেতু খুবই সাম্প্রতিক, সে কারণে এই নির্বাচনের উদহারন টেনেছেন তিনি।

আরও পড়ুন : হত্যা মামলায় ৮ জনের মৃত্যুদণ্ড

মার্কিন ভিসানীতির পর বিএনপি বলেছে যে, নির্বাচন প্রতিহতের পথে তারা যাবে না। তারা অন্য কোনো পদ্ধতিতে সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার পথ বের করবে। এমন প্রশ্নে আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির বক্তব্যেই স্পষ্ট যে এই ভিসানীতির কারণে বিএনপির ওপর বিরাট চাপ তৈরি হয়েছে। তারা প্রতিহত, প্রতিরোধ বর্জনের কথা বলতে পারছে না।

জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে বিএনপির কর্মসূচি সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তাদের এসব কর্মসূচি একেবারেই গতানুগতিক। তারা কিছুক্ষণ হাঁটে, কিছুক্ষণ বসে, তারপর কিছুক্ষণ গাড়িঘোড়া পোড়ায়। এখন তারা হয়ত দৌড়ানোর কর্মসূচি দেবে।

সান নিউজ/এমআর

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

সড়কে প্রাণ গেল মোটর মেকানিকের

মো. নাজির হোসেন, মুন্সীগঞ্জ : মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানে মোটরস...

টিভিতে আজকের খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রতিদিনের মতো আজ ‍শুক্রবার (১২ জুলাই) ব...

সকালে থেকে ঢাকায় তুমুল বৃষ্টি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাপ্তাহিক ছুটির...

সিক্যুয়েল থেকে বাদ দীপিকা!

বিনোদন ডেস্ক: বক্স অফিস জুড়ে এখন শুধুই ‘কল্কির’...

ইসরায়েলি আগ্রাসনে নিহত আরও ৫০ 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইসরায়েলি বর্বর হামলায় আরও অর্ধশত ফিলিস্তি...

দ. আফ্রিকায় বাংলাদেশি নিহত

প্রবাস ডেস্ক : দক্ষিণ আফ্রিকায় সড়ক দুর্ঘটনায় মোশারফ হোসেন মি...

গাজায় বিমান হামলায় নিহত ৭১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : গাজার পশ্চিম খান ইউনিসের আল-মাওয়াসি এলা...

মেঘনায় মিলল যুবকের লাশ

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদ...

অশুভ শক্তি কোটাবিরোধীতায় নেমেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : কোটাবিরোধীতায় অশুভ শক্তি নেমেছে মন্তব্য ক...

মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করব

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রান্তিক মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করা...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা