ইমরান খান
আন্তর্জাতিক

ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

সান নিউজ ডেস্ক: পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তেহরিক-ই-ইনসাফের চেয়ারম্যান ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: রোহিঙ্গা সংকট গ্রহণযোগ্য নয়

ইসলামাবাদের মারগাল্লা থানার একজন ম্যাজিস্ট্রেট তার বিরুদ্ধে এ পরোয়ানা জারি করেছেন। শনিবার (০১ অক্টোবর) পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

চলতি বছরের ২০ আগস্ট ইমরান খানের বিরুদ্ধে একটি আদালত অবমাননার মামলা হয়। মূলত দেশটির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ জেবা চৌধুরীর বিষয়ে মন্তব্য করার পর ওই মামলাটি হয়।

আরও পড়ুন: কাবুলে নিহত বেড়ে ৩৫

আদালত অবমাননার মামলাটিতে ইমরান খান ইসলামাবাদ হাইকোর্টে একটি হলফনামা জমা দেন। এর কয়েক ঘন্টা পরেই তার বিরুদ্ধে জারি হওয়া গ্রেফতারি পরোয়ানাটি সামনে আসে। হলফনামায় তিনি ক্ষমা চাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেন, সেক্ষেত্রে যদি জেবা চৌধুরী মনে করেন সমালোচনা করার ক্ষেত্রে তিনি সীমা অতিক্রম করেছেন।

জানা গেছে, ২০ আগস্ট ইসলামাবাদের এফ-৯ পার্কে বক্তৃতা দেওয়ার সময় ইমরান খান ঊর্ধ্বতন এক পুলিশ কর্মকর্তা, এক নারী বিচারক, রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান ও আমলাতন্ত্রকে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠে।

আরও পড়ুন: ফের বেড়েছে ডিমের দাম

প্রসঙ্গত, ইমরান খান নিয়াজি পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী, পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়াড় এবং অধিনায়ক। খেলোয়াড় জীবন শেষে তিনি রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। তিনি বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বকালের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডারদের একজন। তার অধিনায়কত্বে পাকিস্তান ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ জয় করে।

১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ জয়ের পর ১৯৯৬ সালে রাজনীতির ময়দানে আসেন ইমরান খান। দুর্নীতি বিরোধী স্লোগানে ১৯৯৬ সালের এপ্রিলে প্রতিষ্ঠা করেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ। পরের বছর ১৯৯৭ সালে তিনি নির্বাচনে দুটি কেন্দ্র থেকে দাঁড়ালেও দুটিতেই হেরে যান। তবুও থেমে যান নি তিনি। ২০০২ সালে নির্বাচনে জয়ী হন ইমরান খান।

২০০৭ সালে প্রেসিডেন্ট হয়ে মোশারফ তৎকালীন সেনা প্রধানের পদে থেকেই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছিলেন। ইমরান খান ওই নির্বাচনের বিরোধিতা করে ওই বছরের ২ অক্টোবর ৮৫ জন পার্লামেন্ট সদস্যদের সাথে পদত্যাগ করেন। সে বারের নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট হয়ে মোশারফ পাকিস্তানে জরুরি অবস্থা জারি করে। ইমরান খানকে গৃহবন্দী করা হয়। ওইসময় তিনি কিছুদিন হাজতবাসও করার পর মুক্তি পান।

২০১৩ সালে পাকিস্তানের ১০তম নির্বাচনে তার দল দ্বিতীয় বৃহত্তম দল হিসেবে আসন জেতে। আর ২০১৮ সালের ২৫ জুলাই পাকিস্তানের ১১ তম জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে তার দল আসন সংখ্যার বিচারে সর্ববৃহৎ দলে পরিণত হয়। তিনি ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন।

সান নিউজ/এনকে

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

সাংবাদিক দেখেই সটকে পড়লেন বুবলী!

বিনোদন ডেস্ক : সাংবাদিকদের আগেই ন...

আপাতত হচ্ছে না পদ্মা ও মেঘনা বিভাগ

সান নিউজ ডেস্ক: ফরিদপুরের পাঁচটি জেলা নিয়ে ‘পদ্মা&rsqu...

পরিবর্তন দাবিতে নাগরিক সংলাপ

নোয়াখালী প্রতিনিধি : সবার মাঝে ঐক...

"সুশিক্ষা ও চাকরি"

বি.খন্দকার : লেখা-পড়া করেই যে দেশ...

হাসপাতালে শবনম ফারিয়া

সান নিউজ ডেস্ক: ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া শার...

শান্তি মিশনে নারীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে

সান নিউজ ডেস্ক: বিশ্বের শান্তি মিশনে বাংলাদেশের নারীরা গুরুত...

বিমানবন্দরে ১০ ঈগল জব্দ

সান নিউজ ডেস্ক : হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অভিযা...

ক্যামেরুনে ভূমিধসে নিহত ১৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মধ্য আফ্রিকার দেশ ক্যামেরুনে ভূমিধসে অন্ত...

ড্রয়ে আশা বাঁচিয়ে রাখল জার্মানি

স্পোর্টস ডেস্ক: কাতার বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে শেষ ষোলর আশা বা...

ভোট গ্রহণ চলছে ৩ ইউপিতে

গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি : গাইবান্ধায় সাদুল্লাপুর উপজেলার ৩ট...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা