বিশেষ সংবাদ

বিশেষ সংবাদ

পুরানো অলিম্পিকের ৩৩ তম সংস্করণে, অর্থাৎ খ্রিস্টপূর্ব ৬৪৮ সালে এই মার্শাল আর্টটি অলিম্পিকের অন্তর্ভুক্ত হয়
আর্টস
ভারত বা চীনে নয়

মার্শাল আর্টের জন্ম গ্রিসে

সান নিউজ ডেস্ক: বর্তমান সময়ে খুব জনপ্রিয় মিক্সড মার্শাল আর্ট। এছাড়া আমাদের পরিচিত ক্যারাটে, কুংফু, মুয়া থাই সহ অসংখ্য মার্শাল আর্ট এই পৃথিবীতে প্রচলিত আছে। কিন্তু যদি প্রশ্ন ওঠে সবচেয়ে প্রাচীন মার্শাল আর্ট কোনটি? এর উত্তর হল প্যানক্রেশন।

প্রাচীন গ্রিসে এই ভয়ঙ্কর মার্শালার্টের জন্ম হয়। ভয়ঙ্কর বলা হচ্ছে কারণ প্রথম দিকে দুই প্রতিযোগীর মধ্যে একজনের মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত এই লড়াই থামত না।প্যানক্রেশনকেই বর্তমানের মিক্সড মার্শাল আর্টের আদিরূপ মনে করা হয়।

প্যানক্রেশন প্রাচীন গ্রিসের একটি খেলা ছিল। পুরানো অলিম্পিকের ৩৩ তম সংস্করণে, অর্থাৎ খ্রিস্টপূর্ব ৬৪৮ সালে এই মার্শাল আর্টটি অলিম্পিকের অন্তর্ভুক্ত হয়। সেই সময় অলিম্পিকে কেবলমাত্র পুরুষরাই অংশগ্রহণ করতে পারতেন এবং তাদের সবাইকে নগ্ন অবস্থায় অলিম্পিকের ক্রীড়া প্রতিযোগিতাগুলিতে অংশগ্রহণ করতে হত। মহিলাদের অংশগ্রহণের ওপর কঠোরভাবে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা ছিল।

বিভিন্ন ঐতিহাসিক তথ্য থেকে জানা গেছে, খ্রিস্টপূর্বাব্দ ৭৭৬ সালে প্রথম অলিম্পিক প্রতিযোগিতা শুরু হয়। তবে এর ৩৩ তম সংস্করণে প্যানক্রেশন খেলাটি অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর এটি সর্বাপেক্ষা জনপ্রিয় খেলায় পরিণত হয়ে যায়। কারণ মানুষ সবসময় উত্তেজনামূলক কোনো কিছু দেখতে চায়।

সে দিক থেকে দেখতে গেলে প্রাচীন গ্রিসে প্যানক্রেশনের থেকে উত্তেজনাকর খেলা আর কিছুই ছিল না। এই খেলায় দুজন নগ্ন বলশালী পুরুষ পরস্পরকে খালি হাতে যত রকমভাবে পারে আঘাত করার চেষ্টা করত।

এই খেলায় নিয়ম-কানুনের বিশেষ কোনো বালাই ছিল না। কেবলমাত্র একে অপরকে কামড়ে দেওয়া, যৌনাঙ্গে লাথি মারা কিংবা চোখ উপড়ে নেওয়ার বিষয়ে বাধা-নিষেধ ছিল। প্রথমদিকে এই খেলাটিতে দুজন প্রতিপক্ষের মধ্যে একজন যতক্ষণ না পর্যন্ত জ্ঞান হারাতেন বা মারা যেতেন, ততক্ষণ পর্যন্ত খেলা চালিয়ে যাওয়া হত। নির্দিষ্ট কোনো সময়সীমার বালাই ছিল না।

গুরুত্বপূর্ণ একটি তথ্য হল তৎকালীন গ্রিসের শক্তিশালী নগররাষ্ট্র স্পার্টার পক্ষ থেকে কোনো ক্রীড়াবিদ প্যানক্রেশন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করত না। কারণ স্পার্টানরা মনে করতেন পরস্পরকে কামড়ানো, চোখ উপড়ে নেয়া কিংবা পুরুষাঙ্গে লাথি মারতে না পারার মতো এই নিয়মগুলি ক্রীড়াবিদরা দীর্ঘদিন ধরে অভ্যাস করলে তারা যুদ্ধক্ষেত্রেও প্রতিপক্ষকে আঘাত করার সময় এই নিয়মগুলি মেনে চলবে। যাতে স্পার্টানদের যুদ্ধক্ষেত্রে হিংস্রতার পরিমাণ না কমে যায় তাই এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের বিষয়ে বিধি নিষেধ আরোপ করে তারা!

প্যানক্রেশন শব্দটি এসেছে গ্রিক শব্দ প্যান ও ক্র্যাতোস থেকে। প্যান শব্দের অর্থ সব এবং ক্র্যাতোস শব্দের অর্থ শক্তি। প্যানক্রেশন শব্দটির অর্থ করলে দাঁড়ায় সর্বশক্তিমান বা সবচেয়ে শক্তিশালী। অলিম্পিকে যে প্রতিযোগী প্যানক্রেশন প্রতিযোগিতায় জয় লাভ করত তাকে তৎকালীন বিশ্বের সর্ব শক্তিমান হিসাবে মেনে নেওয়া হত।

প্যানক্রেশনের মধ্যে দুটি ভাগ ছিল, আনো প্যানক্রেশন এবং কাটো প্যানক্রেশন। দাঁড়িয়ে লড়াই করাকে বলা হত আনো প্যানক্রেশন এবং লড়াই করতে করতে শুয়ে বা বসে পড়ার বিভাগটির নাম ছিল কাটো প্যানক্রেশন। একসময় প্যানক্রেশন এতোটাই জনপ্রিয় হয় যে অলিম্পিকের বাইরেও বিভিন্ন সময়ে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে শুরু করে গ্রিসের নগররাষ্ট্রগুলির শাসকরা।

প্যানক্রেশন মার্শাল আর্টের সঙ্গে গ্রিসের নগররাষ্ট্র ম্যাসিডোনিয়ার বিখ্যাত রাজা আলেকজান্ডার দ্য গ্রেটের নাম যুক্ত আছে। আলেকজান্ডার যখন এশিয়া অভিযানে যাবেন বলে ঠিক করেন সেই সময় তাঁর সেনাবাহিনীতে এসে যোগ দিয়েছিলেন ডিওক্সিপাস। তিনি ছিলেন তৎকালীন অলিম্পিকের একজন প্যানক্রেশন বিজয়ী। কিন্তু তার এই অন্তর্ভুক্তিতে ক্ষেপে যান আলেকজান্ডারের দীর্ঘদিনের শক্তিশালী এক সেনা কোরাগাস।

কথিত আছে কোরাগাস ঢাল তরোয়াল নিয়ে ডিওক্সিপাসকে দ্বন্দ্বযুদ্ধে আহ্বান জানালে তিনি কেবল মাত্র একটা লাঠি সম্বল করে প্যানক্রেশন পদ্ধতিতে লড়াই করে খুব সহজেই কোরাগাসকে পরাজিত করেন। যদিও কোরাগাস প্রাণে বেঁচে গিয়েছিলেন।

সান নিউজ/এমএম

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

‘কাপড় খুলে রাস্তার মধ্যে পিটাবো’ (অডিও)

সাননিউজ ডেস্ক: ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের (ভিএনএসস...

গরুর মাংসের শুটকি

সান নিউজ ডেস্ক: শুটকি, ভাজা এবং ভ...

করোনায় মৃত্যু ২৪৭ জনের

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও...

ইয়নসি বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধু কর্ণার’

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: জাতির পিতা বঙ...

হরিপুর অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর মেশিন হস্তান্তর

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার...

নতুন রূপে জয়া

‌বিনোদন ডেস্ক: জনপ্রিয় অভি...

রংপুরে দলবেঁধে ধর্ষণের পর হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রংপুরে এক নারীক...

সজীব ওয়াজেদ জয়ের মতো নেতৃত্বই প্রয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য...

সমন্বিত মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের দীর্ঘমেয়াদী...

সিনোফার্মের টিকা পাচ্ছে রোহিঙ্গারা

নিজস্ব প্রতিবেদক: মরণব্যাধি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে চীনের তৈরি...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা