বিশেষ সংবাদ

বিশেষ সংবাদ

জাতীয়
জীবিত ৫ আসামিকেই মৃত্যুদণ্ড

দীর্ঘ ৩২ বছরে লালদীঘি হত্যা মামলার রায়

নিজস্ব রিপোর্ট:

কেবল হত্যাকাণ্ডই নয়। হত্যার পর লাশ স্বজনদের হাতে না দেয়া, এমনকি হত্যার পর মৃতদেহ পুড়িয়ে ফেলার মতো বীভৎসতা। এমনই রোমহর্ষক ঘটনার বিচারের রায় এলো দীর্ঘ ৩২ বছর পর। চট্টগ্রাম নগরের লালদীঘি ময়দানে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার জনসভার আগে গুলি চালিয়ে ২৪ জনকে হত্যার রায় ঘোষিত হয়েছে আজ। এ ঘটনায় পাঁচ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার বিকালে চট্টগ্রামের বিশেষ জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইল হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। পলাতক একজন ছাড়া এসময় এজলাসে চার আসামির সবাই উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডিতরা হলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কোতোয়ালি অঞ্চলের তৎকালীন পেট্রোল ইনসপেক্টর জে সি মণ্ডল, কন্সটেবল মোস্তাফিজুর রহমান, প্রদীপ বড়ুয়া, শাহ মো. আবদুল্লাহ ও মমতাজ উদ্দিন।

এছাড়া ‘বিপজ্জনক অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আঘাত সৃষ্টির’ দায়ে দণ্ডবিধির ৩২৬ ধারায় পাঁচ আসামির প্রত্যেককে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক।

১৯৯২ সালের ৫ মার্চ এরশাদের পতনের পর আইনজীবী মো. শহীদুল হুদা বাদী হয়ে চট্টগ্রামের তৎকালীন পুলিশ কমিশনার কাজী রকিবুল হুদা ও কোতোয়ালি জোনের পুলিশ পরিদর্শক (পিআই) গোবিন্দ চন্দ্র মণ্ডলসহ মোট ৪৬ জনকে আসামি করে মামলা করেন। কিন্তু তৎকালীন বিএনপি সরকারের সময়ে মামলার কার্যক্রম আর এগোয়নি।

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর মামলাটি পুনরুজ্জীবিত হয়। দুই দফা তদন্ত শেষে ১৯৯৮ সালের ৩ নভেম্বর আট পুলিশ সদস্যকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় সিআইডি।

অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিদের মধ্যে পাঁচজন এখনও জীবিত আছেন। মৃত আসামিরা হলেন সিএমপির কমিশনার মীর্জা রকিবুল হুদা এবং কনস্টেবল আব্দুস সালাম ও বশির উদ্দিন।

মামলায় ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাবেক গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, শেফালী সরকার, সাংবাদিক অঞ্জন কুমার সেন ও হেলাল উদ্দিন চৌধুরী, সুভাষ চন্দ্র লালা, অশোক কুমার বিশ্বাস, হাসনা বানু, মাঈনুদ্দিন, আবু সৈয়দ এবং অশোক বিশ্বাস অন্যদের মধ্যে সাক্ষ্য দেন।

গত ১৪ জানুয়ারি ৫৩তম সাক্ষী আইনজীবী শম্ভুনাথ নন্দীর সাক্ষ্য দেওয়ার মধ্য দিয়ে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়। ওইদিন আদালত যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের জন্য ১৯ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন।

রোববার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী যুক্তি উপস্থাপন শেষে পাঁচ আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন। পরে আদালত আসামি পক্ষে যুক্তি উপস্থাপনের জন্য সোমবার দিন রেখেছিলেন। কিন্তু আসামিপক্ষ যুক্তি উপস্থাপন না করায় এদিনই আদালত রায় ঘোষণা করেন।

উল্লেখ্য, সাবেক সামরিক শাসক এরশাদ সরকারের আমলে ১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রামের লালদীঘি ময়দানে আটদলীয় জোটের জনসভা ছিল। চট্টগ্রাম বিমানবন্দর থেকে মিছিল করে জনসভাস্থলে যাওয়ার পথে শেখ হাসিনার ট্রাকমিছিলে সশস্ত্র হামলা হয়।

চট্টগ্রাম আদালত ভবনের পাশে পুলিশের নির্বিচার গুলিতে নিহত হন ৩০ জন। ওই ঘটনায় শেখ হাসিনাকে মানববর্ম তৈরি করে রক্ষা করতে গিয়ে সেদিন নয়জন নেতা-কর্মী নিহত হন।

সে ঘটনায় মো. হাসান মুরাদ, মহিউদ্দিন শামীম, স্বপন কুমার বিশ্বাস, এথলেবার্ট গোমেজ কিশোর, স্বপন চৌধুরী, অজিত সরকার, রমেশ বৈদ্য, বদরুল আলম, ডি কে চৌধুরী, সাজ্জাদ হোসেন, আব্দুল মান্নান, সবুজ হোসেন, কামাল হোসেন, বি কে দাশ, পঙ্কজ বৈদ্য, বাহার উদ্দিন, চান্দ মিয়া, সমর দত্ত, হাসেম মিয়া, মো. কাসেম, পলাশ দত্ত, আব্দুল কুদ্দুস, গোবিন্দ দাশ ও শাহাদাত হোসেন নিহত হন।

নিহতদের কারও লাশ পরিবারকে নিতে দেয়নি স্বৈরশাসক হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সরকার। সেসময় সবাইকে বলুয়ার দীঘি শ্মশানে পুড়িয়ে ফেলা হয়।

ওই হত্যাকাণ্ডের পর তিন দশকেরও বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও এর বিচার কাজ থেমে ছিল বিভিন্ন কারণে।

সান নিউজ/সালি

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

জনগণের সেবায় নিজেকে বিলিয়ে দেব: পূর্ণিমা বড়ুয়া

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাঙামাটি : আসন্ন রাঙামাটি পৌরসভা নির্বাচনে...

‘সব মানুষকে বীমার আওতায় আনা দরকার’

নিজস্ব প্রতিবেদক : সব শ্রেণি-পেশা...

শিল্পকলা থেকে মূল্যবান চিত্রকর্ম সরানোর অভিযোগ

হাসনাত শাহীন : প্রধানমন্ত্রী শেখ...

সিরাজগঞ্জে কাউন্সিলর হত্যায় ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৪

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে চাঞ্চল্যকর বিজয়ী কাউ...

করোনার টিকা দেয়া শুরু বুধবার

নিজস্ব প্রতিবেদক : কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে একজন নার্সকে...

৩০ জানুয়ারি রাতে ধীর গতিতে থাকবে ইন্টারনেট

সান নিউজ ডেস্ক : দ্বিতীয় সাবমেরি...

ইটভাটাগুলোতে চাপা পড়ছে শিশুর ‘রঙিন’ ভবিষ্যৎ

ইমতিয়াজুর রহমান, ভোলা : নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে ইটভাটাগুলো...

ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা নামলো

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক : রেইনবো চলচ...

শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা, জনজীবন বিপর্যস্ত

নিজস্ব প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার : চায়ের রাজধানী খ্যাত পর্যটন শহ...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা