ছবি: সংগৃহীত
জাতীয়

শুরু হলো বিজয়ের মাস

নিজস্ব প্রতিবেদক: শুরু হলো মহান বিজয়ের মাস ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালে ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদ আর ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানির বিনিময়ে অর্জিত হয় জাতির চূড়ান্ত বিজয়, ধরা দেয় স্বপ্নের স্বাধীনতা।

আরও পড়ুন: একদিনে আরও ৭ মৃত্যু, ভর্তি ৮৭৭

এ মাসেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সশস্ত্র স্বাধীনতা সংগ্রামের এক ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতির কয়েক হাজার বছরের সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্বপ্নসাধ পূরণ হয়।

বাংলাদেশের সুদীর্ঘ রাজনৈতিক ইতিহাসের শ্রেষ্ঠ ঘটনা ’৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ। ঐ বছরের ১৬ ডিসেম্বর মহান মুক্তিযুদ্ধে চূড়ান্ত বিজয়ের মাধ্যমে বাঙালি জাতির জীবনে সবচেয়ে গৌরবের অধ্যায় রচিত হয়।

আরও পড়ুন: আরও ৩০ বন্দিকে মুক্তির ঘোষণা

এ মাসের ১৬ ডিসেম্বর বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন মুক্তিযুদ্ধের অবিস্মরণীয় গৌরবদীপ্ত চূড়ান্ত বিজয় আসে এবং স্বাধীন জাতি হিসেবে সমগ্র বিশ্বে আত্মপরিচয় লাভ করে বাঙালিরা।

বাঙালি অর্জন করে নিজস্ব ভূখণ্ড আর সবুজের বুকে লাল সূর্য খচিত নিজস্ব জাতীয় পতাকা। ভাষার ভিত্তিতে যে জাতীয়তাবাদ গড়ে উঠেছিল, এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর এ দিনে বিজয়ের মাধ্যমে ঘোষিত স্বাধীনতা পূর্ণতা পায়।

আরও পড়ুন: মার্কিন শ্রমনী‌তি নিয়ে দুশ্চিন্তা নেই

এ জাতির হাজার বছরের স্বপ্নপূরণ হওয়ার পাশাপাশি বহু তরতাজা প্রাণ বিসর্জন আর মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে এ অর্জন হওয়ায় বেদনাবিধুর এক শোকগাঁথার মাসও এ ডিসেম্বর।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি তাদের এ দেশীয় দোসর রাজাকার, আলবদর, আল-শামসদের সহযোগিতায় হানাদার গোষ্ঠী দেশের মেধাবী, শ্রেষ্ঠ সন্তান-বুদ্ধিজীবী হত্যার নৃশংস হত্যাযজ্ঞে মেতে উঠেছিল।

সে সময় সমগ্র জাতিকে মেধাহীন করে দেওয়ার এ ধরনের ঘৃণ্য হত্যাযজ্ঞের বিশ্বে দ্বিতীয় কোনো নজির নেই। ডিসেম্বর মাসের শুরু থেকেই মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা আক্রমণ।

আরও পড়ুন: রোববার থেকে ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ

ভারতীয় মিত্রবাহিনীর সমন্বয়ে গঠিত যৌথ বাহিনীর জল, স্থল ও আকাশপথে সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে বর্বর পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর পরাজয়ের খবর চারদিক থেকে ভেসে আসতে থাকে।

এরপর ১৬ ডিসেম্বর ঢাকার ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) পাকিস্তানি বাহিনী আত্মসমর্পণ করতে বাধ্য হয়।

আরও পড়ুন: জবির উপাচার্য হলেন ড. সাদেকা হালিম

যেখানে ৭ মার্চ স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম,’ বলে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন, সেখানেই পাকিস্তানি জেনারেল নিয়াজী পরাজয়ের দলিলে স্বাক্ষর করেন।

গৌরবময় এ বিজয়ের মাস উদযাপনে জাতীয় কর্মসূচির পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকে বিস্তারিত কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। এ মাসজুড়ে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নানা কর্মসূচি পালন করবে।

সান নিউজ/এনজে

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

অভিযোগ করেও প্রতিকার পাননি মেয়র প্রার্থী

মো. নাজির হোসেন, মুন্সীগঞ্জ: স্থা...

কি এমন দুঃখ ছিল সাংবাদিক অভিশ্রুতির?

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : সম্প্রতি গত ‍বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ)...

মনপুরায় চেয়ারম্যান পদে হাড্ডা-হাড্ডি লড়াই 

ভোলা সংবাদদাতা: আগামী ৯ মার্চ অনু...

বিচ্ছেদে কাজে ফোকাস ছিল

বিনোদন ডেস্ক: অভিনেত্রী জয়া আহসান...

বিজিবিও হবে বিশ্বমানের স্মার্ট বাহিনী

নিজস্ব প্রতিবেদক : আমরা বর্ডার গার্ড বাংলাদেশকে বিশ্বমানের আ...

পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি আগুন

জেলা প্রতিনিধি: পুরোপুরি নিয়ন্ত্র...

আবাসিক হোটেল থেকে লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর নিউ ইস...

রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী...

ছাত্রকে হত্যাচেষ্টায় শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা

জেলা প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের মেডিক...

মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকদের বিক্ষোভ

জেলা প্রতিনিধি: গাজীপুরের ঢাকা-ময়...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা