সারাদেশ

গাছ কাটা ও বিদ্যুৎ বিভ্রাটের প্রতিবাদে অবরোধ

প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কে গাছ কাটার প্রতিবাদে ও অসহনীয় বিদ্যুৎ বিভ্রাটের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেছে।

আরও পড়ুন : বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেবে ইতালি

বুধবার (৮ জুন) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত হবিগঞ্জবাসীর ব্যানারের কোর্ট মসজিদের সামনে শহরের প্রধান সড়ক অবরোধ করা হয়।

এসময় শিক্ষার্থীদের সাথে সাধারণ লোকজন একাত্মতা পোষণ করেন। পরে হবিগঞ্জ বিদ্যুৎ কার্যালয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাকিবুল ইসলাম বিদ্যুৎ পরিস্থিতি উন্নতির আশ্বাস দিলে সড়ক অবরোধ তুলে নেন শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন : কোম্পানির এমডি-চেয়ারম্যান গ্রেফতার

অবরোধ চলাকালে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। অবরোধকালে গাছ কাটা বন্ধু বিদুৎ বিভ্রাটের প্রতিবাদে শ্লোগান দেয়ার পাশাপাশি প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করা হয়।

ঘন্টাব্যাপী সড়ক অবরোধের সময় সহমত জানিয়ে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল বলেন, আমরা এখানে গাছ রক্ষার জন্য কথা বলছি। আমরা হবিগঞ্জের বিদ্যুতের যে দুরবস্থার কথা বলছি। আমরা গাছের জন্য হবিগঞ্জে বিশুদ্ধ পানি পাচ্ছি না। এরপরও গাছগুলো কেটে ফেলা হচ্ছে। গাছ যেন কাটা না হয় সেজন্য আইন রয়েছে। কিন্তু আইন প্রয়োগের ব্যাপারে তারা অবিবেচক হয়ে গাছগুলো কেটে ফেলছে। হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কে গাছগুলো না কাটার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। ছোট গাছগুলোর আড়ালে শতবর্ষ পুরনো গাছগুলোও কাটা হচ্ছে।

আরও পড়ুন : মা-ছেলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

সাবেক ছাত্রনেতা মাহমুদা খা বলেন, হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কের পাইকপাড়া থেকে পুরাণ বাজার পর্যন্ত সামাজিক বনায়নের দোহাই দিয়ে নির্বিচারে গাছ কাটা হচ্ছে। বর্তমানে যে তাপদাহের সৃষ্টি হয়েছে, তার জন্য গাছ রোপন করার পাশাপাশি বৃক্ষ নিধন বন্ধ করতে হবে। গাছ কাটার পাশাপাশি অসহ্য বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে হবিগঞ্জবাসীর খুবই কষ্ট হচ্ছে।

ছাত্রনেতা ও শিক্ষার্থী প্রণব কুমার দেব বলেন, আমরা ইতিমধ্যে হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ রোড়ে নির্বিচারে গাছ কাটার প্রতিবাদে বিভিন্ন কর্মসূচী করেছি। আজ তার ধারাবাহিকতায় সড়ক অবরোধ করছি। গাছ কাটা মানুষ হত্যার সামিল। গাছ না থাকলে মানুষ বাঁচবে না। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে আমাদের জানিয়েছে রাস্তা উন্নয়নের জন্য এই গাছ কাটা হচ্ছে। কিন্তু গাছ কেটে কোন উন্নয়ন হয় না। শুধু কিছু লোকের পকেট ভারী হবে।

আরও পড়ুন : ইমরান-কোরেশি উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়

সড়ক অবরোধস্থলে এসে হবিগঞ্জের ভয়াবহ লোডশেডিং সমস্যা এক সপ্তাহের মধ্যে নিরসন করার প্রতিশ্রুতি দেন হবিগঞ্জ বিদ্যুৎ উন্নয়ন কার্যালয়ে উপ-সহকারী রাকিবুল ইসলাম। তিনি বলেন, হবিগঞ্জে বিদ্যুতের চাহিদা প্রতিদিন ১৯ মেগাওয়াট। সেখানে আমরা পাচ্ছি ৭ মেগাওয়াট। যে অবস্থার কারণে এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সামাজিক বনায়নের কথা বলে হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কের পাইকপাড়া থেকে পুরাণ বাজার পর্যন্ত প্রায় দুই হাজার গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে। ইতিমধ্যে হাজারখানেক গাছ কাটা হয়েছে।

সান নিউজ/এমআর

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

অভিযোগ করেও প্রতিকার পাননি মেয়র প্রার্থী

মো. নাজির হোসেন, মুন্সীগঞ্জ: স্থা...

কি এমন দুঃখ ছিল সাংবাদিক অভিশ্রুতির?

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : সম্প্রতি গত ‍বৃহস্পতিবার (২৯ মার্চ)...

মনপুরায় চেয়ারম্যান পদে হাড্ডা-হাড্ডি লড়াই 

ভোলা সংবাদদাতা: আগামী ৯ মার্চ অনু...

বিচ্ছেদে কাজে ফোকাস ছিল

বিনোদন ডেস্ক: অভিনেত্রী জয়া আহসান...

খাগড়াছড়িতে কিশোরীর লাশ উদ্ধার

আবু রাসেল সুমন, খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়ির দীঘিনালার ম...

জমি নিয়ে দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, নিহত ১

জেলা প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এক সা...

সাফের ফাইনালে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক : নেপালের কাঠমান্ডুতে সাফ অনূর্ধ্ব-১৬ নারী চ্...

রমজানে ব্যাংক লেনদেন ৫ ঘণ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক : আসন্ন রমজান মাস উপলক্ষে ব্যাংকে লেনদেনের...

ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে নোটিশ টানানো শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: হাইকোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী, রাজধানীর যেসব...

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ চ্যালেঞ্জ

নিজস্ব প্রতিবেদক : দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ আমাদের কাছে বড় চ্যা...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা