ফাইল ছবি
শিল্প ও সাহিত্য

আজ বিশ্ব বই ও কপিরাইট দিবস

সান নিউজ ডেস্ক: আজ ২৩ এপ্রিল, বিশ্ব বই ও কপিরাইট দিবস। এটি ইউনেস্কো (জাতিসংঘের শিক্ষাগত, বৈজ্ঞানিক ও সাংস্কৃতিক সংস্থা) দ্বারা পঠন , প্রকাশনা ও কপিরাইট প্রচারের জন্য আয়োজিত একটি বার্ষিক অনুষ্ঠান।

আরও পড়ুন: বিশ্ব ধরিত্রী দিবস

প্রতিবছর এ দিনটিতে সারা বিশ্বের বইপ্রেমীরা বিশেষ গুরুত্ব নিয়ে উদযাপন করেন। এ বছর ১০০টির অধিক দেশে পালিত হচ্ছে বিশ্ব বই দিবস।

বিশ্বায়নের এ যুগে মেধাবী প্রজন্ম ও জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গড়ে তোলার মূল উপাদান হচ্ছে বই এবং চর্চার মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে পাঠাভ্যাস। বিশ্ব বই দিবস বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

দিনটিতে বই পড়ার আনন্দদায়ক অভিজ্ঞতার উদযাপন ও প্রচারণা চালানো হয়। দিনটিতে বই পড়ে অতীত ও ভবিষ্যতের কথা ভাবেন অনেক পাঠক।

আরও পড়ুন: বিশ্ব কণ্ঠ দিবস

বিশ্ব বই ও কপিরাইট দিবস উপলক্ষে ইউনেস্কো বই শিল্পের প্রধান সেক্টর থেকে উপদেষ্টা কমিটির সাথে এক বছরের জন্য ওয়ার্ল্ড বুক ক্যাপিটাল নির্বাচন করে।

প্রতিটি মনোনীত ওয়ার্ল্ড বুক ক্যাপিটাল সিটি বই ও পাঠ উদযাপন এবং প্রচারের জন্য কার্যক্রমের একটি কর্মসূচি পালন করে। ২০২৪ সালে স্ট্রাসবার্গকে বিশ্ব বইয়ের রাজধানী হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে।

১৯৯৫ সালের ২৩ এপ্রিল প্রথম বিশ্ব বই দিবস পালিত হয়েছিল। যুক্তরাজ্য এবং আয়ারল্যান্ডে এটি মার্চ মাসে পালন করা হয়।

আরও পড়ুন: আধুনিক অলিম্পিকের সূচনা

তবে মূল ধারণাটি ১৯২২ সালে বার্সেলোনার সার্ভান্তেস পাবলিশিং হাউসের পরিচালক ভিসেন্টে ক্ল্যাভেল দ্বারা কল্পনা করা হয়েছিল লেখক মিগুয়েল ডি সারভান্তেসকে সম্মান জানানো এবং বইয়ের বিক্রি বাড়ানোর উপায় হিসাবে।

১৯৯৫ সালে প্যারিসে ইউনেস্কোর সাধারণ অধিবেশনে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যে, ২৩ এপ্রিল বিশ্ব বই ও কপিরাইট দিবস পালিত হবে। কারণ এ তারিখটি উইলিয়াম শেক্সপিয়র ও ইনকা গারসিলাসো দে লা ভেগার মৃত্যুবার্ষিকী। সেই সাথে অনেকের জন্ম বা মৃত্যুর দিন।

এছাড়া বই পড়া, ছাপানো এবং বইয়ের কপিরাইট সংরক্ষণ করা ইত্যাদি বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে দিবসটি পালন করা হয়।

আরও পড়ুন: বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস

প্রতিবছর এ দিন উদযাপনের জন্য নানা উদ্যোগ হাতে নেন সারা বিশ্বের পাঠকরা। এসব উদ্যোগের মধ্যে রয়েছে-

১. দীর্ঘদিন ধরে পড়তে চাচ্ছেন, কিন্তু পড়ার সময় পাননি এমন একটি বই পড়তে শুরু করা।
২. স্থানীয় লাইব্রেরিতে যেয়ে তাদের বইয়ের সংগ্রহ যাচাই-বাছাই করে দেখা।
৩. একটি বুক ক্লাব মিটিংয়ে যোগ দেয়া বা নিজেই এ ধরনের কার্যক্রম শুরু করা।
৪. স্থানীয় স্কুল বা দাতব্য প্রতিষ্ঠানে নতুন-পুরনো বই দান করা।

দিনটিতে সামাজিক মাধ্যমে ওয়ার্ল্ড বুক ডে হ্যাশট্যাগ (#WorldBookDay) দিয়ে নিজের প্রিয় বই ও লেখকদের বিষয়ে তথ্য প্রকাশ করা। এ বছর বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও এ দিবসটি পালন করছেন লেখক, পাঠক ও প্রকাশকরা।

সান নিউজ/এনজে

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

দুপুরের মধ্যে ১০ জেলায় ঝড়ের শঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীসহ দেশের ১০টি অঞ্চলের ওপর দিয়ে ঘণ্ট...

ভোলায় উপকূলজুড়ে কোস্টগার্ড মোতায়েন  

ভোলা প্রতিনিধি: আসন্ন ৬ষ্ঠ উপজেলা...

সমুদ্রে মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা শুরু কাল 

নিনা আফরিন, পটুয়াখালী: আগামীকাল...

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের ওপর হামলায় উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: কিরগিজস্তানে বা...

নজর কাড়লেন কিয়ারা

বিনোদন ডেস্ক: কান চলচ্চিত্র উৎসব...

মাথাসহ হরিণের মাংস উদ্ধার

জেলা প্রতিনিধি: নোয়াখালী জেলার দ্বীপ উপজেলার হাতিয়ায় অভিযান...

পাঁচ অঞ্চলে ঝড়-বৃষ্টির আভাস

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের ৫ অঞ্চলের ওপর দিয়ে ঝড়-বৃষ্টির আভাস...

ক্রিস্টোফার কলম্বাস’র প্রয়াণ

সান নিউজ ডেস্ক: আজকের ঘটনা কাল অতীত। প্রত্যেকটি অতীত সময়ের স...

রাইসিকে বহনকারী হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইরানের পূর্ব আজারবাইজান প্রদেশে প্রেসিডে...

ওজন নিশ্চিতে বিএসটিআই কাজ করছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএসটিআই সঠিক ওজন ও পরিমাপ নিশ্চিত করতে ন...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা