আন্তর্জাতিক
এরদোয়ানকে হুঁশিয়ার করলো ভারত

কাশ্মীরে কি হচ্ছে কেউ জানে না: র-এর সাবেক প্রধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয়ার পর সংবাদ মাধ্যেমে খুব একটা প্রকাশিত হয়নি সেখানকার পরিস্থিতি। মিডিয়াকে কড়া নজরদারিতে রেখেছে ভারত সরকার। বন্ধ করে দেয়া হয় সেখানকার ইন্টাররনেট সেবা। বন্দি করা হয় রাজনৈতিক নেতাদের। এমন পরিস্থিতিতে সেখানে কি হচ্ছে তা জানেনা বিশ্ববাসী।

ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা র’-এর সাবেক প্রধান অমরজিত সিং দুলাত বলেছেন, ‘কাশ্মীরে কি হচ্ছে, তা কেউই জানে না। নয়াদিল্লি কি ভাবছে, তাও কেউই জানে না। ভারতের ন্যাশনাল হেরাল্ডকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই মন্তব্য করেন দেশটির সাবেক এই গোয়েন্দা প্রধান।

তিনি বলেন, কাশ্মীরের ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানা যাচ্ছে না। সরকার দাবি করছে সব কিছু স্বাভাবিক।

দুলাত বলেন, ‘কাশ্মীরিরা মনে করছে যে তাদের বিরুদ্ধে বৈষম্য করা হচ্ছে। কিন্তু তারা জানে না, তাদের দোষ কী। সেখানে প্রতি ৩০ জন বেসামরিক ব্যক্তির বিপরীতে একজন সেনা সদস্য অবস্থান করছে। মানুষকে যখন বন্দির মতো করে রাখা হলো, আমরা জানতাম যে এটি দীর্ঘায়িত হবে। এটি হয়তো আরও তিন বছর থাকতে পারে, বা কয়েক মাসও হতে পারে। যদি না আদালত কোনো সিদ্ধান্ত দেয়।

পাবলিক সেফটি অ্যাক্ট ব্যবহার করে সরকার সেখানে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করেছে। সেটি ব্যবহার করে কতদিন এই কাশ্মির পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পারবে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

দুলাত মনে করেন, ‘কাশ্মীর ইস্যু কেবল নিরাপত্তার দৃষ্টিকোণ থেকেই মোকাবিলা করা হচ্ছে। কিন্তু এটি কেবল নিরাপত্তা ইস্যুই নয়। এটি একটি রাজনৈতিক, আবেগিক ও মনস্তাত্বিক বিষয়। আগে হোক বা পরে, সরকারকে এটি বুঝতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বিজেপি ঘটনাপ্রবাহের ন্যারেটিভ নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেও, বিশ্বজুড়ে এই বিষয়টির ওপর সরকারের চাওয়ার চেয়েও বেশি মনোযোগ পড়েছে।

দুলাত বলেন, আমরা পছন্দ করি, আর না করি, প্রশ্ন উঠছেই। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এই মাসের শেষের দিকে ভারত সফর করবেন। তিনি ইতিমধ্যে দুইবার ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতার কথা বলেছেন। এটি আমাদের জন্য সুখকর কিছু নয়।

অন্যদিকে, পাকিস্তান সফররত তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান গতকাল ১৪ ফেব্রুয়ারি দেশটির পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে ভাষণ দেন। ওই ভাষণে তিনি কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়া তুরস্কা-পাকিস্তানের যৌথ ঘোষণাতেও স্থান পায় কাশ্মির ইস্যু।

তুর্কি প্রেসিডেন্টের মন্তব্য এবং পাকিস্তান-তুরস্কের যৌথ ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে ভারত। বলেছে, জম্মু ও কাশ্মির ভারতের অখণ্ড ও অবিচ্ছেদ্য অংশ। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবিশ কুমার বলেন, ‘আমরা তুর্কি নেতৃত্বকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার এবং প্রকৃত সত্য নিয়ে বোঝাপড়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রকৃত সত্য হলো এই অঞ্চলে ঢুকে পড়া সন্ত্রাসীরা ভারতের জন্য মারাত্মক হুমকি।

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

শনাক্তে শীর্ষে জাপান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত...

হাতে আঁকা মেসির সবচেয়ে বড় ছবির প্রদর্শন

এম.এ আজিজ রাসেল : বিশ্বের সবচেয়ে আলোচিত ও অন্যতম সেরা ফুটবলা...

ঢাকায় আসছেন মার্কিন মন্ত্রী

সান নিউজ ডেস্ক: মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের জনসংখ্যা, শরণার্থী...

কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসকের বদলি জনিত বিদায় সংবর্ধনা

কামরুজ্জামান স্বাধীন, উলিপুর, (কুড়িগ্রাম)...

আবারও দেখা যাবে ঐন্দ্রিলাকে!

সান নিউজ ডেস্ক: টালিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা।...

ভালুকায় আলোচনার শীর্ষে জামাল উদ্দিন আহমেদ

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : নেত...

তরুণীর রহস্যজনক মৃত্যু

সান নিউজ ডেস্ক : নরসিংদী ব্যাংক ক...

গাজায় বিমান হামলা

সান নিউজ ডেস্ক : ফিলিস্তিনের গাজা...

৭ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ফাঁসি

সান নিউজ ডেস্ক : মিয়ানমারের সাম...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা