আন্তর্জাতিক
এরদোয়ানকে হুঁশিয়ার করলো ভারত

কাশ্মীরে কি হচ্ছে কেউ জানে না: র-এর সাবেক প্রধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারত কাশ্মিরের স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নেয়ার পর সংবাদ মাধ্যেমে খুব একটা প্রকাশিত হয়নি সেখানকার পরিস্থিতি। মিডিয়াকে কড়া নজরদারিতে রেখেছে ভারত সরকার। বন্ধ করে দেয়া হয় সেখানকার ইন্টাররনেট সেবা। বন্দি করা হয় রাজনৈতিক নেতাদের। এমন পরিস্থিতিতে সেখানে কি হচ্ছে তা জানেনা বিশ্ববাসী।

ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা র’-এর সাবেক প্রধান অমরজিত সিং দুলাত বলেছেন, ‘কাশ্মীরে কি হচ্ছে, তা কেউই জানে না। নয়াদিল্লি কি ভাবছে, তাও কেউই জানে না। ভারতের ন্যাশনাল হেরাল্ডকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এই মন্তব্য করেন দেশটির সাবেক এই গোয়েন্দা প্রধান।

তিনি বলেন, কাশ্মীরের ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে স্পষ্ট করে কিছু জানা যাচ্ছে না। সরকার দাবি করছে সব কিছু স্বাভাবিক।

দুলাত বলেন, ‘কাশ্মীরিরা মনে করছে যে তাদের বিরুদ্ধে বৈষম্য করা হচ্ছে। কিন্তু তারা জানে না, তাদের দোষ কী। সেখানে প্রতি ৩০ জন বেসামরিক ব্যক্তির বিপরীতে একজন সেনা সদস্য অবস্থান করছে। মানুষকে যখন বন্দির মতো করে রাখা হলো, আমরা জানতাম যে এটি দীর্ঘায়িত হবে। এটি হয়তো আরও তিন বছর থাকতে পারে, বা কয়েক মাসও হতে পারে। যদি না আদালত কোনো সিদ্ধান্ত দেয়।

পাবলিক সেফটি অ্যাক্ট ব্যবহার করে সরকার সেখানে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করেছে। সেটি ব্যবহার করে কতদিন এই কাশ্মির পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পারবে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।

দুলাত মনে করেন, ‘কাশ্মীর ইস্যু কেবল নিরাপত্তার দৃষ্টিকোণ থেকেই মোকাবিলা করা হচ্ছে। কিন্তু এটি কেবল নিরাপত্তা ইস্যুই নয়। এটি একটি রাজনৈতিক, আবেগিক ও মনস্তাত্বিক বিষয়। আগে হোক বা পরে, সরকারকে এটি বুঝতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বিজেপি ঘটনাপ্রবাহের ন্যারেটিভ নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেও, বিশ্বজুড়ে এই বিষয়টির ওপর সরকারের চাওয়ার চেয়েও বেশি মনোযোগ পড়েছে।

দুলাত বলেন, আমরা পছন্দ করি, আর না করি, প্রশ্ন উঠছেই। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প এই মাসের শেষের দিকে ভারত সফর করবেন। তিনি ইতিমধ্যে দুইবার ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতার কথা বলেছেন। এটি আমাদের জন্য সুখকর কিছু নয়।

অন্যদিকে, পাকিস্তান সফররত তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান গতকাল ১৪ ফেব্রুয়ারি দেশটির পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনে ভাষণ দেন। ওই ভাষণে তিনি কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দেন। এছাড়া তুরস্কা-পাকিস্তানের যৌথ ঘোষণাতেও স্থান পায় কাশ্মির ইস্যু।

তুর্কি প্রেসিডেন্টের মন্তব্য এবং পাকিস্তান-তুরস্কের যৌথ ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে ভারত। বলেছে, জম্মু ও কাশ্মির ভারতের অখণ্ড ও অবিচ্ছেদ্য অংশ। ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবিশ কুমার বলেন, ‘আমরা তুর্কি নেতৃত্বকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করার এবং প্রকৃত সত্য নিয়ে বোঝাপড়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রকৃত সত্য হলো এই অঞ্চলে ঢুকে পড়া সন্ত্রাসীরা ভারতের জন্য মারাত্মক হুমকি।

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

সহজ শর্তে স্বাস্থ্য বিমা চালু হোক

নৌশিন আহম্মেদ মনিরা: দেশে সাধারণ বিমা ও জীবন বিমা কর্পোরেশন...

বেসামাল দ্রব্যমূল্য

জাহিদ রাকিব: বাজারে চাল-ডাল-তেল-আটা-পেঁয়াজসহ প্রতি মুহুর্তে...

আবারও বাইকে আগুন দিলেন চালক

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজধানীতে পলাশী এলাকায় আবারও ট্রাফিক পুলিশ...

ইকবালকে কুমিল্লায় আনা হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে...

বিশ্বকাপের মূল পর্বে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্কঃ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে ৮৪ রানের...

যুক্তরাষ্ট্রে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উন্নত প্রযুক্তির হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রে...

টাইগারদের অভিনন্দন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর

ক্রীড়া প্রতিবেদক: আনন্দে ভাসছে বা...

টিকাদান কার্যক্রমে ভুল ছিলো

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পরিবহন ও আবাসনমন্ত্রী...

বোরকা রহস্য ও রূপান্তরিত পরী

বিনোদন ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়া হয়ে মানিকগঞ্জে মচ্ছব বসছে প্রায়...

জাপানে বাড়ছে ‘ভুতুড়ে’ বাড়ি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: এশিয়ার অন্যতম প্রভাবশালী দেশ জাপানে &lsqu...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা