বিশেষ সংবাদ

বিশেষ সংবাদ

সারাদেশ

আনসারীর জানাজায় অংশ নেয়ায় সরাইলের ৬ গ্রাম লকডাউন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিবেদক:

মাওলানা জোবায়ের আহমদ আনসারীর জানাজায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ ও সরাইল থেকেই বেশিরভাগ মানুষ অংশ নিয়েছেন বলে ধারণা করছে প্রশাসন। আর এ জন্য তাদের কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনতে যাচ্ছে পুলিশ।

শনিবার (১৮ এপ্রিল) সন্ধ্যায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আনিসুর রহমান এ কথা নিশ্চিত করেন।

এরিমধ্যে সরাইলে ছয়টি গ্রাম লকডাউন করা হয়েছে। গ্রামের কেউ যাতে বের হতে না পারে সেজন্য অতিরিক্ত পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের বলেন, জেলার আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে লোকজন বেশি অংশ নিয়েছে ওই জানাজায়। ওইসব গ্রামে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হচ্ছে। ওই গ্রামগুলোর লোকজন যেন ঘর থেকে বের হতে না পারেন সেজন্য তাদের হোমকোয়ারেন্টিন করা হবে।’

তিনি আরো জানান, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে ছোট পরিসরে জানাজা হবে বলে সংশ্লিষ্টরা আমাদের কথা দিয়েছিলেন। কিন্তু সেটা তারা করেননি।

সরাইলের পানিশ্বর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জানান, মাওলানা জোবায়ের আনসারীর মৃত্যুর সংবাদ নিয়ে শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) কোনও মাইকিং হয়নি। আমরা শুনিনি। মানুষ কীভাবে দলে দলে অংশ নিতে গেলো সেটা বলতে পারবো না। ফেসবুক থেকে জেনে হতে পারে। তবে আজ শনিবার বিকাল ৫টার পর এই উপজেলার ছয়টি গ্রাম লকডাউন করা হয়েছে। বেড়তলা, বলিবাড়ী, সীতাহরণ, শান্তিনগর, মইশার, টিঘর এই গ্রামগুলো লকডাউন করা হয়েছে।

সরাইল থানার ওসি শাহাদাত হোসেন টিটু জানান, জেলা লকডাউনের পরও আলাদা করে এই ছয়টি গ্রাম লকডাউন করা হলো। এখান থেকেই বেশি লোক জানাজায় অংশ নিয়েছে। যেহেতু লোকজন লকডাউন উপেক্ষা করে বের হয়েছে এবং হচ্ছে, তাই এলাকা বিশেষভাবে লকডাউন করা হলো।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সচেতন নাগরিক কমিটির সভাপতি প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা বিবেককে কবর দিয়ে আবেগকে প্রাধান্য দিয়ে যে কাজ করি, এটাই তার প্রমাণ। কারণ ধর্মীয় আদেশ ও সরকারি আদেশে লোক সমাগম নিষেধ করা হয়েছে। এরপরও এতো লোক সমাগম কেন?

তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এতো লোক কি আকাশ দিয়ে এসে জমায়েত হয়েছে। ঘটনা যা ঘটার ঘটে গেছে। এখন আর কিছু করার আছে বলে মনে হয় না। তারা (আইন শৃঙ্খলা বাহিনী) কোথায় ছিলেন। এটা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর পুরো ব্যর্থতা ও এ দায় তাদের।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান বলেন, উনারা (মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ) আমাদের বলেছিলেন সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করবেন। কিন্তু সেটা তারা কেন করেননি তা খতিয়ে দেখা হবে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (১১ এপ্রিল) সন্ধ্যা থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় লকডাউন চলছে।

সান নিউজ/সালি

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

সিরাজগঞ্জে কাউন্সিলর হত্যায় ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৪

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জে চাঞ্চল্যকর বিজয়ী কাউ...

করোনার টিকা দেয়া শুরু বুধবার

নিজস্ব প্রতিবেদক : কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে একজন নার্সকে...

গৃহহীনরা পেলো ৭০ হাজার ঘর 

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি আশ্রায়ন...

জেঁকে বসেছে শীত, থাকতে পারে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানী ঢাকাসহ...

কোনো লোক গৃহহারা থাকবে না : প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : ৫৬ হাজার বর্গম...

নলছিটিতে নারী কাউন্সিলর প্রার্থীকে মারধরের অভিযোগ 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝালকাঠি : ঝালকাঠির নলছিটি পৌরসভা নির্বাচনক...

বুঝেশুনে সিদ্ধান্ত নিতে চান নায়লা

বিনোদন ডেস্ক : বাংলাদেশের আলোচিত-...

কমলগঞ্জে শীতের তীব্রতায় জনজীবন বিপর্যস্ত

স্বপন দেব, মৌলভীবাজার : গত কয়েকদিন থেকে কনকনে হিমেল বাতাস ও...

বিখ্যাত সাংবাদিক ল্যারি কিং আর নেই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনাভাইরাসে...

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১০৯১ গৃহহীন পরিবার

নিজস্ব প্রতিনিধি, ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভূমিহীনদে...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা