ছবি-সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক

রাশিয়ার ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাশিয়ার বিরুদ্ধে নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্রসহ জি-৭ জোটের দেশগুলো। রাশিয়ার ‘ওয়ার মেশিন’, লাভজনক হীরা বাণিজ্য ও ইউক্রেনে পরিচালিত সামরিক অভিযানের সঙ্গে যুক্ত বেশ কয়েকটি সংস্থার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে জোটটি।

আরও পড়ুন : সেনাবাহিনীর স্থাপনায় হামলায় নিন্দা

শুক্রবার (১৯ মে) জাপানে জোটের সম্মেলনে এসব নিষেধাজ্ঞা ঘোষণা করা হয়।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেন ও রাশিয়ার যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্রদেশগুলো রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। জি-৭ জোটের সদস্য দেশগুলো হলো জাপান, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র।

এখন পর্যন্ত রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, বিভিন্ন আর্থিক খাত, ব্যবসায়ীসহ হাজারো ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ওয়াশিংটন।

আরও পড়ুন : শক্তিশালী ভূমিকম্পে সুনামি সতর্কতা

শুক্রবার জি-৭ এর নেতারা জাপানের হিরোশিমায় রাশিয়ার বাৎসরিক চার থেকে পাঁচ হাজার কোটি ডলারের হীরা বাণিজ্য নিয়ে বৈঠক করেন। সেসময় তারা বিদ্যমান নিষেধাজ্ঞাগুলোকে আরও কঠোর করার মাধ্যমে আরও বেশি রুশ সংস্থা ও তাদের আন্তর্জাতিক অংশীদারদের শাস্তিমূলক বিধিনিষেধের আওতায় আনার বিষয়ে দৃঢ় মত প্রকাশ করেন।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি সপ্তাহ শেষে ভার্চুয়ালি জি-৭ শীর্ষ সম্মেলনে ভাষণ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। তবে স্বাগতিক জাপানের জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে তিনি শেষ মুহূর্তে ব্যক্তিগতভাবে সম্মেলনে উপস্থিত হতে পারেন।

আরও পড়ুন : ইতালিতে বন্যায় ১৩ জনের মৃত্যু

আজ সম্মেলনের প্রথম দিনের শুরুতে রাশিয়ার ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিষয়ে জোটের দেশগুলোর কাছ থেকে সমর্থন পায় যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন প্রশাসনের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, রাশিয়া ও অন্যান্য দেশে থাকা আরও ৭০টি সংস্থাকে মার্কিন কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, নতুন নিষেধাজ্ঞার আওতায় তিন শতাধিক ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান, নৌ ও আকাশ যোগাযোগ সংস্থা অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক বলেন, জি-৭ এর নিষেধাজ্ঞাগুলো রাশিয়াকে নতুন হুমকির মুখে ফেলবে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট চার্লস মিশেল বলেন, রাশিয়ার হীরা চিরদিনের জন্য নয়। আমরা রাশিয়ার হীরা বাণিজ্যের ওপর কড়া বিধিনিষেধ আরোপ করবো।

আরও পড়ুন : ইউক্রেনজুড়ে বিমান হামলার সতর্কতা

ইইউর সদস্য দেশ বেলজিয়াম, ভারত ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে হীরার বৃহত্তম পাইকারি বাজার রয়েছে রাশিয়ার। জি-৭ ও অন্যান্য নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার যুদ্ধ প্রচেষ্টাকে কতটুকু বাধাগ্রস্ত করেছে, তা নিয়ে অর্থনীতিবিদদের ভিন্ন ভিন্ন মত রয়েছে।

রাশিয়ার অর্থনীতি ২০২২ সালে দুই দশমিক ১ শতাংশ সংকুচিত হয়েছিল। এ প্রবণতা চলতি বছরের শুরুতে অব্যাহত থাকলেও, দ্রুতই খাপ খাইয়ে নিতে শুরু করে মস্কো।

অনেকে বলছেন, জি-৭ নেতারা ভারত ও ব্রাজিলের নেতাদের সতর্ক করতেও এ শীর্ষ সম্মেলনকে কাজে লাগাচ্ছেন। কারণ এ দুটি আঞ্চলিক শক্তি প্রায়ই মস্কো বা চীনের সমালোচনা করতে অনিচ্ছুক থাকে।

সান নিউজ/জেএইচ

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

জায়েদের সাথে অভিনয় করতে চায় টয়া

বিনোদন ডেস্ক: বর্তমানে ছোটপর্দার...

ইসলামী ব্যাংকের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইসলামী ব্যাংক ট্রেনিং অ্যান্ড রিসার্চ একা...

জয়ন্তী অনুষ্ঠান উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ আওয়ামী...

ভালুকায় কৃষি উদ্যোক্তা তৈরির কারিগর সাইদুল ইসলাম

ভালুকা (ময়মনসিংহ) সংবাদদাতা: ময়মনসিংহের ভালুকায় কৃষি কাজে শি...

লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূ হত্যার বিচারের দাবি

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে গৃহবধূ জোসনা আক্ত...

ইউনাইটেড হাসপাতাল অমানবিক আচরণ করেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারের ভয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়...

ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠাল অস্ট্রেলিয়া

স্পোর্টস ডেস্ক : টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নবম আসরের সুপার এইটে...

গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ, দগ্ধ ২

জেলা প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে গ্যাসের লিকেজ থেকে বি...

ইসলামী ব্যাংকের অডিট কর্মশালা অনুষ্ঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : ইসলামী ব্যাংক ট্রেনিং অ্যান্ড রিসার্চ একা...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা