শিল্প ও সাহিত্য

এবারের একুশে পদক পাচ্ছেন ২০ ব্যক্তি ও ১ প্রতিষ্ঠান

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ চলতি বছর একুশে পদক পাচ্ছেন দেশের ২০ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি। এর মধ্যে রয়েছে একটি প্রতিষ্ঠানও।

৫ ফেব্রুয়ারি বুধবার সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রাষ্ট্রীয় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদকপ্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করে।

এবারের পদক প্রাপ্তদের মধ্যে উল্লেখযোগ্যরা হলেন প্রয়াত কণ্ঠশিল্পী আব্দুল জব্বার, সাংবাদিক জাফর ওয়াজেদ, প্রয়াত লেখক সিকদার আমিনুল হক।

একুশে পদক প্রাপ্তরা হলেন :

ভাষা আন্দোলনে মরণোত্তর মরহুম আমিনুল ইসলাম বাদশা।

শিল্পকলায় (সংগীত) বেগম ডালিয়া নওশিন, শঙ্কর রায় ও মিতা হক।

শিল্পকলায় (নৃত্য) মো. গোলাম মোস্তফা খান।

শিল্পকলায় (অভিনয়) এম এম মহসীন।

শিল্পকলায় (চারুকলা) অধ্যাপক শিল্পী ড. ফরিদা জামান।

মুক্তিযুদ্ধে (মরণোত্তর) মরহুম হাজি আক্তার সরদার, মরহুম আব্দুল জব্বার, মরহুম ডা. আ আ ম মেসবাহুল হক (বাচ্চু ডাক্তার)।

সাংবাদিকতায় জাফর ওয়াজেদ (আলী ওয়াজেদ জাফর)।

গবেষণায় ড. জাহাঙ্গীর আলম, হাফেজ কারী আল্লামা সৈয়দ মোহাম্মদ ছাইফুর রহমান নিজামী শাহ।

শিক্ষায় অধ্যাপক ড. বিকিরণ প্রসাদ বড়ুয়া।

অর্থনীতিতে অধ্যাপক ড. শামসুল আলম।

সমাজসেবায় সুফি মোহাম্মদ মিজানুর রহমান।

ভাষা ও সাহিত্যে ড. নুরুন নবী, মরহুম সিকদার আমিনুল হক (মরণোত্তর) ও বেগম নাজমুন নেসা পিয়ারি।

চিকিৎসায় অধ্যাপক ডা. সায়েবা আখতার।

একুশে পদক প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান

গবেষণায় বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট।

আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে একুশে পদক তুলে দেবেন।

একুশে পদকের ইতিহাসঃ

একুশে পদক বাংলাদেশের জাতীয় এবং সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার। ১৯৫২ সালের মহান ভাষা আন্দোলনের অমর শহীদদের স্মরণে ১৯৭৬ সাল থেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য বিশিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে স্বীকৃতিস্বরূপ একুশে পদক প্রদান করা হয়।

দেশের বরেণ্য বুদ্ধিজীবী, সংস্কৃতিকর্মী, সামাজিক ব্যক্তিত্ব ও দেশের উন্নয়নে অসামান্য ভূমিকা রাখা সরকারি-বেসরকারি সংস্থা বা সংগঠনকে সম্মানিত করার জন্য বাংলাদেশ সরকারের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ পদক চালু করা হয়।

১৯৭৬ সালে তৎকালীন শিক্ষা-সংস্কৃতি বিষয়ের উপদেষ্টা শিক্ষাবিদ সাহিত্যিক আবুল ফজলের পরামর্শে বাংলাদেশ সরকার প্রথম একুশে পদক প্রবর্তন করে। প্রথমবারের মত বঙ্গভবনে আয়োজিত সে অনুষ্ঠানে সাহিত্য, শিক্ষা ও সাংবাদিকতা এই তিনটি বিভাগে কবি কাজী নজরুল ইসলাম, কবি জসীম উদ্দীন, বেগম সুফিয়া কামাল, ড. মুহাম্মদ কুদরাত-এ- খুদাসহ মোট নয়জন এ পদক পান। প্রতি বছর ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে এ পদক প্রদান করা হয়।

পদক বিজয়ীদের একটি করে পদক, একটি সম্মাননা সনদ, একটি রেপ্লিকা এবং পুরস্কারের অর্থমূল্য দিয়ে সম্মানিত করা হয়।

সান নিউজ/সালি

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

সৈয়দপরে শোয়ার ঘরে ব্যবসায়ী খুন

আমিরুল হক, নীলফামারী: নীলফামারীর...

জিয়ার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়

শওকত জামান, জামালপুর : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদ...

গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়...

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় টিউলিপ ফুলের চাষ

রাশেদুজ্জামান রাশেদ, পঞ্চগড়: দেশের সর্ব উত্তরের সীমান্ত জেলা...

ইরাকের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে রকেট হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইরাকের মার্কিন...

রাজধানীর যেসব এলাকায় বিদ্যুৎ থাকবে না শনিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাৎসরিক সংরক্ষণ...

নির্বাচিতরা যেন শিল্পীদের পাশে থাকেন

বিনোদন প্রতিবেদক: বাংলাদেশ শিল্পক...

খালে ভাসছে বাঘের মরদেহ

বাগেরহাট প্রতিনিধি: পূর্ব সুন্দরব...

ফারুক আহমেদের মা আর নেই

বিনোদন ডেস্ক: না ফেরার দেশে পাড়ি...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা