বিশেষ সংবাদ

বিশেষ সংবাদ

সারাদেশ

বাবুল আক্তার কারাগারে

চট্টগ্রাম ব্যূরো : পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যা মামলায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হননি বাবুল আক্তার। ফলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

সোমবার (১৭ মে) বিকেলে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম সারোয়ার জাহানের আদালতে এ নির্দেশ দেওয়া হয়। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবউদ্দিন আহমেদ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম সারোয়ার জাহানের আদালতে জবানবন্দি দেওয়ার জন্য হাজির করা হয় বাবুল আক্তারকে। বিচারক নিয়ম অনুযায়ী স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হওয়ার জন্য তাকে তিন ঘণ্টা সময় দেন। এরপরও আদালতে জবানবন্দি দিতে অস্বীকৃতি জানান বাবুল আক্তার। ফলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ১২ মে বুধবার সরোয়ার জাহানের আদালত মিতু হত্যা মামলায় স্বামী বাবুল আক্তারের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রোববার (১৬ মে) দিবাগত রাত ১১টায় রিমান্ডের মেয়াদ শেষ হয়। কিন্তু রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে বাবুল আক্তার মিতু হত্যার কোন তথ্য দেননি বলে জানান তদন্ত সংস্থা পিবিআই।

পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে বাবুল আক্তার শুধুমাত্র এনজিও কর্মকর্তা গায়ত্রী অমর সিংয়র সঙ্গে পরকীয়ার জের ধরে দাম্পত্য কলহের কথা স্বীকার করেন। কিন্তু মিতু হত্যার বিষয়টি তিনি সুকৌশলে এড়িয়ে যান। এছাড়া হত্যাকাণ্ডে নেতৃত্ব দেওয়া কামরুল ইসলাম সিকদার মুছা তার সোর্স বলে স্বীকার করেন। এর বাইরে কোন তথ্য দেননি। সবকটি প্রশ্নে নিরব ছিলেন তিনি।

এছাড়া ঢাকার মোহাম্মদপৃুরে তিনি বর্তমানে কোন বাসায় থাকেন তার ঠিকানা পর্যন্ত সঠিকভাবে দেননি। অনেক গড়িমসির পর সঠিক তথ্য দিলেও সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। সেখানে পৌছার আগেই তার বর্তমান স্ত্রী ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শিশু মাহির ও তাবাস্সুমকে নিয়ে অন্যত্র চলে গেছেন।

অথচ এই মামলায় প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে শিশু মাহির, হত্যাকান্ডের নায়ক মুছা ও পরকীয়া প্রেমিকা গায়ত্রী অমর সিংয়ের সঙ্গে কথা বলা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু তিনজনেরই এখন কোন হদিস মিলছে না বলে জানান পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

সন্তোষ কুমার চাকমা বলেন, মূলত গায়েত্রী সিংয়ের সঙ্গে বাবুলের প্রেমের বিরোধ থেকেই স্ত্রী মিতুকে সরিয়ে দিতে তিন লাখ টাকার কিলিং মিশনের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেন বাবুল আক্তার। কিলিং মিশনের চুক্তির তিন লাখ টাকা বাবুলের বন্ধু সাইফুলের মাধ্যমে মুছার এক আত্নীয়ের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়। সাইফুলের সঙ্গে মামুন নামে বাবুলের এক বন্ধুও ছিল। তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় এ সংক্রান্ত জবানবন্দি দিয়েছেন। এ থেকে নিশ্চিত যে, মিতু হত্যার মাস্টারমাইন্ড বাবুল আক্তার।

গত মঙ্গলবার (১১ মে) এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে হত্যা মামলায় স¤পৃক্ততা মেলায় বাবুল আক্তারকে হেফাজতে নেয় পিবিআই। তবে আইনিভাবে বাদিকে গ্রেপ্তারের সুযোগ না থাকায় আদালতে তাকে হাজির করার পর তার শ^শুড় মোশাররফ হোসেনের করা নতুন মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেয় পিবিআই। একই সাথে বাবুলের করা মামলাটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে জমা দেওয়া হয়। কিন্তু রিমান্ডে তেমন মুখ খুলেননি বাবুল আক্তার।

তবে গায়ত্রী অমর সিং এখন ইউরোপে অবস্থান করলেও কক্সবাজারে থাকাকালীন তার বাসার গৃহকর্মীর খোঁজ পেয়েছে তদন্ত সংস্থা। যে কোনও সময়ে ওই গৃহকর্মীর কাছে গায়ত্রী-বাবুলের পরকীয়া স¤পর্কে জানতে চাওয়া হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৫ জুন সকালে চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ে প্রকাশ্য সড়কে গুলিতে ও ছুরিকাঘাতে খুন হন মাহমুদা খানম মিতু। ওই দিন রাতে তার স্বামী তৎকালীন পুলিশ সদর দপ্তরে কর্মরত এসপি বাবুল আক্তার বাদি হয়ে পাঁচলাইশ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। শুরু থেকে চট্টগ্রামের ডিবি পুলিশ মামলাটির তদন্ত করে। তারা প্রায় তিন বছর তদন্ত করেও অভিযোগপত্র দিতে ব্যর্থ হয়। পরে ২০২০ সালের জানুয়ারিতে আদালত মামলাটির তদন্তের ভার পিবিআইকে দেয়।

পিবিআইয়ের তথ্যমতে, ১২ মে চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানায় মিতুর বাবার করা মামলায় প্রধান আসামি বাবুল আক্তার। অপর আসামিরা হলেন, কামরুল ইসলাম সিকদার মুছা, এহতেসামুল হক ভোলা, মোতালেব মিয়া ওরফে ওয়াসিম, আনোয়ার হোসেন, খায়রুল ইসলাম, সাইফুল ইসলম সিকদার ও শাহজাহান মিয়া।

এদের মধ্যে ওয়াসিম ও আনোয়ার আগে থেকেই জেলে। আদালতের নির্দেশে তাদের আবারো শ্যোন এরেষ্ট দেখানো হয়েছে গত শনিবার। বাবুল আক্তার ও সাইদুল ইসলাম সাকু মিতুর বাবার দায়ের করা মামলায় রিমান্ডে আছেন। ভোলা ও শাহজাহান জামিনে মুক্তি পেয়ে পলাতক রয়েছেন। শুরু থেকে অধরা মুছা ও কালু। এদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন পিবিআই পরিদর্শক সন্তোষ কুমার চাকমা।

সান নিউজ/আইকে/বিএস

Copyright © Sunnews24x7
সবচেয়ে
পঠিত
সাম্প্রতিক

২০ দিনের পরিচয়ে বিয়ে করলেন রেলমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিনিধি, দিনাজপুর : দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার মেয়...

স্ট্যাম্প উড়িয়ে আম্পায়ারকে মারতে গেলেন সাকিব!

স্পোর্টস ডেস্ক: একটি অনাকাঙ্খিত ঘ...

পাওয়া গেল ১৯৯টি মরা মুরগি

সাননিউজ ডেস্ক: আমিন মোহাম্মদ গ্রু...

আমিও বিষয়টা উপভোগ করছি : শিশির

ক্রীড়া ডেস্ক : বিতর্ক যেন পিছু ছা...

ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতিকে মারধর

নিজস্ব প্রতিনিধি, বোয়ালমারী (ফরিদপুর) : পূর্ব শত্রুতার জেরে...

নাতির মৃত্যু গুজব নিয়ে বললেন হানিফ সংকেত

বিনোদন ডেস্ক: ইত্যাদির নিয়মিত নানা-নাতি ও নানি-নাত...

টিকা আনতে চীন যাচ্ছে বিমান

সাননিউজ ডেস্ক: চীনের উপহার দেওয়া করোনাভাইরাসের ছয় লাখ টিকা...

সিদ্ধিরগঞ্জে শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে আহত ২০

নিজস্ব প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে বকে...

কাবুলে বোমা হামলা, নিহত ৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানের কাবুলে বোমা হামলায় অন্তত স...

টিকাদান : ১ কোটি ৬৫ হাজার ডোজ দেওয়া শেষ

সাননিউজ ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনাভাই...

লাইফস্টাইল
বিনোদন
sunnews24x7 advertisement
খেলা